মেইন ম্যেনু

ভারতের অখণ্ডতা রক্ষায় শপথ নিলেন মোদি

ভারতের অখণ্ডতা রক্ষায় ১৫তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন বিজেপির নরেন্দ্র মোদি। সোমবার ভারতের স্থানীয় সময় ৬টা ১২ মিনিটে দেশটির রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীর কাছ থেকে শপথ বাক্য পাঠ করেন তিনি।

ভারতের রাইসিনা হিলে রাষ্ট্রপতি ভবনের উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে (ফোরকোর্ট) শপথ অনুষ্ঠান হয়। এর আগে রাষ্ট্রপতি ভবনের অনুষ্ঠানে ১ হাজার ৪০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ অতিথির সমাগম হয়। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতাসহ এত বড় আয়োজন এবারই প্রথম। এছাড়া রাষ্ট্রপতি ভবনের সামনের উন্মুক্ত স্থানে এর আগে মাত্র দু’বার শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান হয়। ১৯৯০ সালে চন্দ্রশেখর এবং ১৯৯৮ সালে অটল বিহারী বাজপেয়ি উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে শপথ নেন। ওই দু’বার নিমন্ত্রিত অতিথির সংখ্যা ছিল ১ হাজার ২০০ ও ১ হাজার ৩০০।

নরেন্দ্র মোদির শপথ অনুষ্ঠানে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফসহ সার্কভুক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্র প্রধানরা অংশ নিয়েছেন। তবে বাংলাদেশের প্রধান্ত্রমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে দেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন।

সেই সঙ্গে সদ্য বিদায়ী ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীও মোদির শপথে উপস্থিত রয়েছেন।

সত্তর মিনিটের এ শপথ অনুষ্ঠানে প্রায় চার হাজার অতিথি। আর তাদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত কমপক্ষে ছয় হাজার নিরাপত্তাকর্মী।

ভারতীয় বিমানবাহিনী, পুলিশ, স্পেশাল কামান্ডো বাহিনীর এ সদস্যরা শপথ অনুষ্ঠানের স্থান রাষ্ট্রপতি ভবনের পাশেই রাইসিনা হিলসের পার্শ্ববর্তী ২ কিলোমিটার জায়গা জুড়ে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার চাদরে ঘিরে ফেলা হয়েছে। নিরাপত্তার জন্য দুপুর ১টার পর থেকেই কর্মীদের ছুটি দিয়ে ওইসব অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়।

জঙ্গি হামলা ঠেকাতে সড়ক ও আকাশপথেও রয়েছে নজরদারি। উঁচু বাড়ির ওপরে আছে স্নাইপার, এনএসজির সার্প স্যুটার।






মন্তব্য চালু নেই