মেইন ম্যেনু

ভারতীয় জঙ্গিদের জন্য নিরাপদ আশ্রয় নয় বাংলাদেশ : বিএসএফ প্রধান

ভারতীয় জঙ্গিদের জন্য বাংলাদেশ এখন আর নিরাপদ আশ্রয়স্থল নয় বলে মন্তব্য করেছেন ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের মহাপরিচালক কে কে শর্মা। শুক্রবার ভারতের মেঘালয় বিএসএফের প্রধান কার্যালয়ে তিনি এই মন্তব্য করেন।

ভারতীয এই বিএসএফ প্রধান বলেন, ‘বাংলাদেশে তারা (ভারতীয় জঙ্গিরা) এখন সক্রিয় নয়। সেখানে ভারতীয় জঙ্গিদের অল্প কিছু প্রশিক্ষণ শিবির ও গোপন আস্তানা ছিল। আমাদের (বিএসএফের) তথ্যের ভিত্তিতে বর্ডার গার্ড (বিজিবি) বাংলাদেশ কার্যকর ব্যবস্থা নিয়েছে এবং সেগুলো ধ্বংস করে দিয়েছে।’

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মাটিতে যদি ভারতীয় জঙ্গিদের আস্তানার বিষয়ে নির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়; তাহলে সেগুলো গুড়িয়ে দিতে বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ভারতের চার রাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশের এক হাজার ৮৮০ কিলোমিটারের সীমান্ত এলাকা রয়েছে। এই চার রাজ্য হলো ত্রিপুরা (৮৫৬ কিলোমিটার), আসাম (২৬৩ কিলোমিটার) মেঘালয় (৪৪৩ কিলোমিটার) ও মিজোরাম (৩১৮ কিলোমিটার)।

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের চোরাচালানের ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করে শর্মা বলেন, অপরাধ ঠেকাতে তার সৈন্যরা সব ধরনের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

বিএসএফের মহাপরিচালক বলেন, ‘আপনাকে বুঝতে হবে যে সীমান্তের উভয় পাশের লোকজন দীর্ঘদিন ধরে এ কার্যকলাপের সঙ্গে জড়িত। আমরা যখন কঠোর হয়ে যাই তখন গরু চোরাচালান বন্ধ হয়ে যায়। তখন তারা খুব দ্রুতই অন্য এলাকায় চলে যায়। আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা সত্ত্বেও এটি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়নি।’

শর্মা বলেন, ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের উন্মুক্ত এলাকায় প্রযুক্তিগত বেষ্টনী তৈরির প্রক্রিয়া শুরু করেছে বিএসএফ। অনুপ্রবেশকারীদের ঠেকাতে খুব শিগগিরই আমরা অনুপ্রবেশকারী সনাক্তকরণ অ্যালার্ম সিস্টেম কার্যকর করবো।

সূত্র : আইএএনএস।






মন্তব্য চালু নেই