মেইন ম্যেনু

ভারতীয় চ্যানেলের প্রচার বন্ধ করেছে নেপাল

ভারত-নেপাল সীমান্তে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য বোঝাই কয়েক শ’ ট্রাক ‘আটকে’ দেওয়ার প্রতিবাদে ৪২টি ভারতীয় চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে নেপালের ক্যাবল অপারেটররা।

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের ট্রাক বন্ধ করে দেওয়াকে ভারতের পক্ষ থেকে অনানুষ্ঠানিক ‘অবরোধ’ বলে সমালোচনা করছে নেপালের জনগণ। কিন্তু ভারত বলছে, নিরাপত্তার কারণে ওইসব ট্রাক যেতে দেওয়া হচ্ছে না।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি নেপালে নতুন যে সংবিধান অনুমোদন করা হয়েছে তার প্রতিবাদে বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে নেপালের দক্ষিণাঞ্চলের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকেরা। আর ভারত নেপালের নতুন সংবিধানের সমালোচক। পার্লামেন্টে সংবিধান পাস হওয়ার পর ভারতের পক্ষ থেকে উদ্বেগও প্রকাশ করা হয়েছে।

অন্যদিকে, নেপালের সাবেক মাওবাদী দলের একটি অংশ ভারতীয় মুভি ও টেলিভিশন চ্যানেলের বিরুদ্ধে কিছু দিন আগে প্রচারণা শুরু করেছে। তারপরই ক্যাবল অপারেটরদের পক্ষ থেকে এ উদ্যোগ নেওয়া হল। নেপাল ক্যাবল টেলিভিশন এ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সুধীর প্রজুলি বিবিসিকে বলেছেন, তাদের ওই ‘বন্ধ কর্মসূচি’ অনির্দিষ্টকালের জন্য চলবে।

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর একটি মুভি থিয়েটারের এক কর্মচারী জানান, দুই দিন আগে তারা ভারতীয় মুভি দেখানো বন্ধ করে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, কাঠমান্ডু ও নেপালের অন্যান্য শহরে ভারতীয় চ্যানেলগুলো ব্যাপক জনপ্রিয়। কিন্তু নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের ট্রাক ‘আটকে’ দেওয়া এবং সার্বভৌম নেপালের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করায় নয়াদিল্লি সম্পর্কে নেপালীদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে। তবে নেপাল তার দৈনন্দিন পণ্যের জন্য ব্যাপকভাবে ভারতনির্ভর।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই