মেইন ম্যেনু

বেয়াদবির কারণে সেন্ট যোসেফ থেকে বহিষ্কৃত হন তারেক : আইনমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ব্যর্থ রাজনীতিক বলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ‘চরম বেয়াদব’ আখ্যায়িত করে আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক জানিয়েছেন, বেয়াদবির কারণে তারেক রহমানকে সেন্ট যোসেফ স্কুল থেকে বের করে দেয়া হয়েছিল।

শনিবার বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ঢাকা বার শাখার সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

আইনমন্ত্রী আরো বলেন, ‘জন্ম বোধ হয় তার (তারেকের) বিদেশেই হয়েছে। এজন্যই বিলেতে গিয়ে বক্তৃতা দেয়, দেশে দিতে পারে না।’ তারেক রহমানকে চরম বেয়াদব একটা ছেলে হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যে তার বাবাকেই শ্রদ্ধা করতে জানে না সে অন্যকে শ্রদ্ধা করবে কীভাবে।’

তারেক রহমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘সেন্ট যোসেফে পড়াশুনার সময় বেয়াদবি করায় তাকে বের করে দেয়া হয়েছিল। তার শিক্ষাগত যোগ্যতা যে কী তা শুধু আল্লাহই জানেন।’

বক্তৃতার শেষদিকে তিনি জামায়াতের বিচার নিয়ে তার আগের দেয়া বক্তব্যের সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যাও দেন। তিনি বলেন, আইনের সংশোধন করেই সংগঠন হিসেবে জামায়াতের বিচার করতে হবে। বর্তমান আইন সম্ভব নয়।

ঢাকা আইনজীবী সমিতির ওই সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। বিশেষ অতিথি ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মো. কামরুল ইসলাম এমপি।

এর আগে সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ঢাকা বার শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ হেমায়েত হোসেন।

প্রসঙ্গত, ১১ বছর আগে ২০০৩ সালের ১১ জুন বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ঢাকা বার শাখার সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল। এই দীর্ঘ সময়ে কোনো সম্মেলন না হওয়ায় নতুন নেতৃত্বও আসেনি। বিগত বার নির্বাচনে ব্যাপক ভরাডুবির পর সবদিক থেকেই নতুন নেতৃত্ব গড়ে তোলার জন্য এ সম্মেলনের দাবি উঠেছিল দলের মধ্য থেকেই।






মন্তব্য চালু নেই