মেইন ম্যেনু

বাজেটের আগেই গ্রাম পুলিশের দাবি মানার আহবান

বাংলার প্রত্যন্ত অঞ্চলকে নিরাপদ ও সুন্দর রাখার জন্য আগামী জাতীয় বাজেটের আগেই গ্রাম পুলিশদের ন্যায্য দাবি মানার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

রবিরাব (২৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে দশটায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়ন-এর সমাবেশ থেকে এ-আহবান জানানো হয়।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য শিরিন আকতার বলেন, গ্রাম পুলিশ আমাদেরই ভাই-বোন, বন্ধু। আপনাদের (গ্রামপুলিশ) অধিকার ও ন্যায্য দাবির ব্যাপারে আমি শুধু এই সমাবেশে নয়, প্রয়োজনে সংসদেও উপস্থাপন করবো। সরকারের উচিৎ হবে, আগামী জাতীয় বাজেটের আগেই গ্রাম পুলিশের যৌক্তিক দাবি বাস্তবায়ণ করা। গ্রাম পুলিশের জীবন-জীবিকার অধিকার নিশ্চিত করা।

বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ) সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, সারাদেশের ৪ হাজার ৫৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদের গ্রামপুলিশদের সরকার যদি বিভিন্ন ট্রেনিং-এর মাধ্যমে দক্ষ ও সুশৃঙ্খল বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে পারে, তাহলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনগোষ্ঠির জীবন যাত্রার মান যেমন উন্নতি হবে তেমনিভাবে সমাজের বিভিন্ন স্তরে লুকায়িত সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নির্মল করাও সম্ভব হবে। মাদকের কালো হাত থেকে নতুন প্রজন্মকে রক্ষা করতে হলে গ্রাম পুলিশদের সহায়তা ও কর্মতৎপরতা বৃদ্ধি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আগামী জুনের মধ্যে গ্রাম পুলিশের যৌক্তিক দাবিগুলো বাস্তবায়ন না করা হলে রাজপথে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারকে বাধ্য করা হবে বলেও বক্তরা হুশিয়ারি করেন।

সমাবেশে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কমান্ডার মোস্তফা কামালের সঞ্চলনায় সভাপতি ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন- জাতীয় শ্রমিক জোটের সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, বাসদ শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, গ্রামপুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের প্রধান সমন্বয়কারী শাহজাহান কবির জহীর, জাতীয় শ্রমিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নঈমুল হাসান জুয়েল, বোয়াফ সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম জুয়েল, সহ-সভাপতি আবদুল করিম মন্ডল, সহ-সভাপতি শাহজাহান সরদার, সহ-সভাপতি মাসুম খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ মান্নান, যুগ্ম সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সত্যনারায়ন দাস, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক লিটন চন্দ্র বিশ্বাস, মহিলা সম্পাদিকা তাসলিমা আক্তার মায়া, কেন্দ্রীয় সদস্য জাহাঙ্গীর, খাদিমুল, মজিবুর প্রমূখ।






মন্তব্য চালু নেই