মেইন ম্যেনু

বর্ষবরণে রাজধানীর যেসব সড়ক বন্ধ

বর্ষবরণের দিন রাজধানী ঢাকায় যেন সুষ্ঠুভাবে যান চলাচল করতে পারে সে জন্য বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। চৈত্র সংক্রান্তির দিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে পয়েলা বৈশাখের রাত ৯টা পর্যন্ত ডিএমপি রাজধানীর সড়কগুলোতে এ পলিকল্পনা প্রয়োগ করছে।

ডিএমপি থেকে জানানো হয়, পয়েলা বৈশাখে রাজধানীর রমনা বটমূল, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, শিশু পার্ক, চারুকলা ইনস্টিটিউট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা একাডেমী, দোয়েল চত্বর, শিশু একাডেমী, হাইকোর্ট ও তৎসংলগ্ন এলাকায় প্রচুর জনসমাগম হবে।

ওই এলাকা এবং আশপাশ এলাকায় সুষ্ঠু যানবাহন চলাচলের লক্ষ্যে ডিএমপি থেকে বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। বিশেষ করে চৈত্র সংক্রান্তির দিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে পয়লা বৈশাখে রাত ৯টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) এলাকায় সহবরাহকৃত স্টিকারযুক্ত গাড়ি ছাড়া অন্য কোন গাড়ি প্রবেশ করতে পারবে না।

ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া জানান, নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছাতে ডিএমপির নির্দেশিত ডাইভারশন অনুসরণ করতে হবে। যেসব সড়কে যান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সেদিকে যান চলাচল বন্ধ রাখতে পুলিশকে সহায়তা করতে হবে। পাশাপাশি নির্দিষ্ট পার্কিং স্থান ব্যবহার করতে হবে।

নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছাতে যেসব ডাইভারশন অনুসরণ করতে হবেঃ

মিরপুর থেকে বিভিন্ন রুটের যেসব গাড়ি ফার্মগেট হয়ে গুলিস্তান কিংবা সায়েদাবাদ-যাত্রাবাড়ি যাবে সে সব বাস হোটেল সোনারগাঁও থেকে বামে মোড় নিয়ে রেইনবো ক্রসিংএ আসবে। সেখান থেকে মগবাজার-মালিবাগ মোড় হয়ে গন্তব্যে যাবে এবং অন্যান্য গাড়ি হোটেল সোনারগাঁও থেকে সোজা এসে বাংলামটরে বামে মোড় দিয়ে মগবাজার থেকে শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলী সরণি হয়ে কাকরাইল চার্চের বামে মোড় নিয়ে গন্তব্যে যাবে এবং আসবে।

মোহাম্মদপুর থেকে যেসব গাড়ি মতিঝিল হয়ে সায়েদাবাদ-যাত্রাবাড়ি-শ্যামপুর যাবে সেসব গাড়ি মোহাম্মদপুর-সাইন্সল্যাব-নিউমার্কেট-বেবী আইসক্রীম মোড়-ঢাকেশ্বরী মন্দির-বক্শীবাজার-চাঁনখারপুল হয়ে গুলিস্থান পৌঁছাবে। সেখান থেকে গন্তব্যে যাবে। তবে ওই এলাকা থেকে আসা প্রাইভেটকারগুলো সাইন্সল্যাব থেকে কাঁটাবন পর্যন্ত আসতে পারবে এবং কাঁটাবন থেকে ডানে বামে যেতে পারবে।

টঙ্গী-এয়ারপোর্ট হতে যেসব গাড়ি গুলিস্তান ও সায়েদাবাদ যাতায়াত করে সেসব গাড়ি টঙ্গী-বিমানবন্দর-প্রগতি সরণির বামে মোড় নিয়ে বিশ্বরোড যাবে। সেখান থেকে মালিবাগ রেলক্রসিংয়ে এসে বামে মোড় নিয়ে খিলগাঁও ফ্লাইওভার ধরে গন্তব্যে যাবে এবং আসবে। অন্যান্য গাড়ি মহাখালী হয়ে মগবাজার-কাকরাইল চার্চের বামে মোড় নিয়ে গন্তব্যে যাবে এবং আসবে।

ধামরাই, মানিকগঞ্জ, গাবতলী হতে যেসব গাড়ি গুলিস্তান, ফুলবাড়ীয়া যাতায়াত করে সেসব গাড়ি মানিকগঞ্জ-ধামরাই-গাবতলী-মিরপুর রোড হয়ে সাইন্সল্যাব আসবে। সেখান থেকে নিউমার্কেট-আজিমপুর-বেবী আইসক্রীম মোড়-ঢাকেশ্বরী মন্দির-বক্শিবাজার-চাঁনখারপুল হয়ে গন্তব্যে যাবে এবং আসবে।

যেসব এলাকায় যান চলাচল বন্ধ থাকবেঃ

বাংলামটর থেকে পুরাতন এলিফ্যান্ট রোড ও টেলিযোগাযোগ ভবন ক্রসিং হয়ে পরিবাগ ক্রসিং থেকে রূপসীবাংলা ক্রসিং বন্ধ থাকবে। শাহবাগ ক্রসিং থেকে মৎস ভবন হয়ে কদম ফোয়ারা ক্রসিং ও হাইকোর্র্ট ক্রসিং বন্ধ থাকবে। গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট থেকে হাইকোর্ট ক্রসিং এবং ইউবিএল থেকে কদম ফোয়ারা বন্ধ থাকবে। হোটেল রূপসী বাংলা ক্রসিং থেকে মিন্টো রোড হয়ে বেইলি রোড ও হেয়ার রোড কাকরাইল মসজিদ ক্রসিং বামের মোড় থেকে চার্চ ক্রসিং হয়ে মৎস্য ভবন ক্রসিং পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। নীলক্ষেত ক্রসিং হতে টিএসসি ক্রসিং বন্ধ থাকবে। পলাশী মোড় থেকে শহীদ মিনার হয়ে দোয়েল চত্বর ক্রসিং বন্ধ থাকবে। বক্শীবাজার থেকে জগন্নাথ হল হয়ে টিএসসি ক্রসিং পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। হাইকোর্ট ক্রসিং থেকে দোয়েল চত্বর ক্রসিং হয়ে শহীদুল্লাহ হল ক্রসিং এবং নৌবাহিনী ভর্তি তথ্য কেন্দ্র থেকে হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল পর্যন্ত যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

যেসব এলাকায় পার্কিং করতে হবেঃ

ঢাকার উত্তর থেকে আসা গাড়ি নৌবাহিনী ভর্তি তথ্য কেন্দ্র হতে হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল পর্যন্ত পার্কিং করবে। জিরো পয়েন্ট থেকে ইউবিএল এবং ইউবিএল থেকে দৈনিক বাংলা পর্যন্ত সব যে কেউ গাড়ি পার্কিং করতে পারবে। ঢাকা দক্ষিণ থেকে আগতরা কার্জন হল থেকে বঙ্গবাজার হয়ে ফুলবাড়িয়া পর্যন্ত গাড়ি পাকিং করতে পারবেন। মৎস্য ভবন থেকে সেগুনবাগিচা এবং শিল্পকলা একাডেমি গলিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গাড়ি পর্কিং করা হবে। সুগন্ধা থেকে অফিসার্স ক্লাব পর্যন্ত ভিআইপি গাড়ি ও গণমাধ্যমের গাড়ি পার্কিং করতে হবে। ঢাকা দক্ষিণ পশ্চিম দিক থেকে আসা গাড়িগুলো কাঁটাবন হতে নীলক্ষেত হয়ে পলাশী পর্যন্ত পাকিং করতে পারবে।

এদিকে যারা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন তাদের অনুষ্ঠানস্থলে আসার সময় সন্দেহজনক কোন সরঞ্জাম, বস্তু, ব্যাগ সঙ্গে বহন না করার অনুরোধ জানিয়েছেন আছাদুজ্জামান মিয়া।






মন্তব্য চালু নেই