মেইন ম্যেনু

বরগুনায় দুটো বাল্য বিয়ে ঠেকানো গেলেও, গেলোনা টুম্পা রানীর বিয়ে

বরগুনার ঢলুয়া ইউনিয়নে মঙ্গলবার দুটো বাল্য বিয়ে বন্ধ হয়েছে। নলী চরকগাছিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর দুই ছাত্রীকে বিয়ে দেবার কথা ছিলো। তার আগেই সচেতন নাগরিক পরিষদের ওয়ার্ড সভাপতি ও লোকবেতারের স্বেচ্ছাসেবক ডা. খায়রুল ইসলাম শাহিন দুই পরিবারের সাথে কথা বলে বিয়ে বন্ধ করেছেন।
চরকগাছিয়া গ্রামের খালেক সরদারের মেয়ে রোজিনা ও ইটবাড়িয়া গ্রামের সত্তার মোল্লার ছেলে জুলহাসের মঙ্গলবার সকালে বিয়ে হবার কথা ছিলো। অপরদিকে ইটবাড়িয়া গ্রামের ফারুক মোল্লার মেয়ে আয়শা ও মরখালী গ্রামের সিদ্দিক সিকদারের ছেলে জয়নালের বিয়ে পড়ানোর কথা ছিলো মঙ্গলবার দুপরে। দুটো বিয়েই বন্ধ করা সম্ভব হয়েছে। দুটো বিয়ে বন্ধ করা সম্ভব হলেও কুমড়াখালী গ্রামের টুম্পা রানীর বিয়ে বন্ধ করা যায়নি। আইনকে তোয়াক্কা না করে কুমড়াখালী বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্রী টুম্পা রানীকে তার বাবা হরেন মিস্ত্রী বিয়ে দিয়ে সোমবার রাতেই চরদুয়ানি স্বামীর বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে। আর এই বাল্য বিয়ে পড়াতে অতুল বেপারী ও নারায়ন মিস্ত্রী সহযোগিতা করেছে বলে জানা গেছে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই