মেইন ম্যেনু

ফের আজমলের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ!

পাকিস্তানের তারকা বোলার সাঈদ আজমল তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে আবার ঝামেলায় পড়েছেন। তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ ম্যাচ অফিসিয়ালরা।

গল টেস্ট শেষে আম্পায়াররা আজমলের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে আইসিসির কাছে রিপোর্ট করে বলে সূত্র জানায়। আইসিসি জানায়, ম্যাচ অফিসিয়ালরা আজমলের বেশ কয়েকটি বল নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন।

রিপোর্টের অনুলিপি পাকিস্তানের ম্যানেজার মঈন আলীর কাছে হ্তান্তর করা হয়েছে বলে আইসিসি জানায়।

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, আগামী ২১ দিনের মধ্যে বিশেষজ্ঞ দ্বারা আজমলকে তার বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা করতে হবে। তবে এই সময়ের মধ্যে তথা পরীক্ষা রিপোর্ট বের হওয়া পর্য ন্ত বোলিং করতে কোনো বাধা নেই আজমলের।

অবশ্য আজমলের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে অভিযোগ ওঠা নতুন কোনো ঘটনা নয়। এর আগেও বেশ কয়েকবার তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে অভিযোগ উঠে।

২০০৯ সালে সর্বপ্রথম সাঈদ আজমলের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে অভিযোগ উঠে। কিন্তু তাৎক্ষনিকভাবে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে তিনি তার বোলিং অ্যাকশন শুধরে নেন।

এরপর ২০১২ সালের জানুয়ারিতে দুবাইতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা ৫৫ রানে ৭ উইকেট দখলের পরে তাকে নিয়ে সন্দেহ শুরু হয়। এই সিরিজে সাবেক ইংলিশ পেসার বব উইলিস আজমলের বিশেষ বোলিং “দুসরা” নিয়ে প্রশ্ন তুলেন।

একই বছরের মার্চে এশিয়া কাপে সাঈদ আজমলের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কাছে অভিযোগ করেছে ভারতের সিনিয়র খেলোয়াড়রা।






মন্তব্য চালু নেই