মেইন ম্যেনু

প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে ট্রাম্প যে কীর্তি করেছিলেন, জানলে চোখ কপালে উঠবে

মার্কিন প্রদেশে এর আগে নয় নয় করে এগারো জন প্রেসিডেন্ট এসেছেন। কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রত্যেকেরই কীর্তি ম্লান হয়ে গিয়েছে মসনদে ভালো করে বসার আগেই। তিনিই প্রথম মার্কিন রাষ্ট্রনায়ক যার এর আগে কোনও পর্ণ ছবিতে অংশ নেওয়ার নজির রয়েছে। ২০১০ সালে ইউএসের বিখ্যাত প্লে-বয় ম্যাগাজিন ‘ভিডিও সেন্টারফোল্ড’ নামে একটি সফট পর্ণ নির্মাণ করে।

মিস ইউনিভার্স এলিসিয়া মাচাদোরের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ার পর গত সেপ্টেম্বর মাসেই ভিডিওটি প্রকাশ্যে আনে মার্কিন গনমাধ্যম বাজফিড। নিউইয়র্কের বাফেলো থেকে খুঁজে পাওয়া ভিডিও সম্পর্কে বাজফিডে বলা হয়, সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে কয়েকজন মডেল যৌন আবেদনময়ী ভঙ্গীতে একে অপরের গোপনাঙ্গে স্পর্শ করেছিলেন। এই ভিডিওতেই ক্যামিও রোলে দেখা গিয়েছিলেন তৎকালীন ধনকুবের ট্রাম্পকে।

ক্যাসিনো-কিং হিসাবেই তখন মার্কিন মুলুকে জনপ্রিয় ছিলেন ট্রাম্প। সেই ভিডিওতে ট্রাম্পকে দেখা গিয়েছিল শ্যাম্পেনের বোতল খুলে প্লে বয় নামাঙ্কিত লিমুজিনে ছিটিয়ে দিতে। ট্রাম্পের মুখের সংলাপ ছিল ‘সুন্দর সুন্দরই হয়। দেখা যাক, নিউইয়র্কে এরপরে কী ঘটে!

নির্বাচনে হিলারি ক্লিন্টন এই পর্ণ-ভিডিও অস্ত্রেই কাত করতে চেয়েছিলেন ট্রাম্পকে। মাচাদোরের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ার প্রসঙ্গ টেনে ক্লিন্টন ‘নারীবিদ্বেষী’ দিকটি তুলে ধরেছিলেন। সেইসময় ভেনেজুয়েলায় জন্ম নেওয়া মাচাদোরকে ‘বিরক্তিকর’ বলে টুইটও করেন রিপাবলিক্যান প্রার্থী ট্রাম্প। সেখানেই না থেমে মাচাদোরের পর্ণ ভিডিও রয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

তবে নির্বাচনে ট্রাম্প প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি জিতলে পর্ণ ইন্ডাস্ট্রি বন্ধ করে দেবেন। এখন দেখার, তিনি তাঁর প্রতিশ্রুতি রাখেন কীনা!






মন্তব্য চালু নেই