মেইন ম্যেনু

প্রধানমন্ত্রী সবসময় মিথ্যা কথা বলেন : সিলেট বিএনপি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরীকে বেঈমান বলায় সিলেট বিএনপির মধ্যে বিরাজ করছে ক্ষোভের আগুন। প্রতিবাদে তারা নগরীতে মিছিল-সমাবেশও করেছেন। ক্ষুব্ধ বিএনপি নেতাদের মতে, প্রধানমন্ত্রী সবসময় মিথ্যা কথা বলেন।

সিলেট বিএনপির নেতারা ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দেশটাকে ওনার বাপের মনে করেন। তিনি সবসময় মিথ্যা কথা বলেন। যারা দেশ স্বাধীন করেছে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালানো মানে দেশের জনগণের বিরুদ্ধে কথা বলা।’

সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকি বলেন, ‘এতোদিন প্রধানমন্ত্রী জিয়াউর রহমানকে নিয়ে কটূক্তি করতেন। কিন্তু এবার আমাদের সিলেটের অহংকার বীরবিক্রম শমসের মবিন চৌধুরীকে নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছেন। এটা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।’

‘প্রধানমন্ত্রী সবসময়ই আবোল-তাবোল কথা বলেন’ মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘জনগণের অভিভাবক হলে মিথ্যা কথা বলতেন না প্রধানমন্ত্রী। ওনার বিন্দুমাত্র লজ্জাবোধ নাই। তাই সবসময়ই মিথ্যা কথা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন।’

শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে ওনার বাপের সম্পত্তি মনে করেন- এমন মন্তব্য করে পংকি বলেন, ‘দেশের প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে মিথ্যা কথা আশা করা যায় না।’

মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি নাসিম হোসাইন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিয়াউর রহমান ও শমসের মবিনকে নিয়ে যে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়েছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট। ওনার মুখে এমন বক্তব্য শোভা পায় না।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শমসের মবিন চৌধুরীকে বেঈমান বলে আখ্যায়িত করার প্রতিবাদে সিলেট নগরীতে মিছিল সমাবেশ করেছে বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনগুলো।

সোমবার বিকেলে মহানগর বিএনপির উদ্যোগে নগরীর কোর্ট পয়েন্ট থেকে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত একটি সমাবেশ করেন তারা।

সমাবেশে মহানগর বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতারা বক্তব্য দেন।

এ সময় বক্তারা বলেন, ‘খালেদা জিয়া ঘোষিত অবৈধ আওয়ামী লীগ সরকারের পতন ঘটানোর লক্ষ্যে আন্দোলনের জন্যে সকল ওয়ার্ড বিএনপির নেতাকর্মীকে প্রস্তুত থাকতে হবে। বিএনপির কেন্দ্র থেকে আন্দোলনের যেসকল কর্মসূচি আসবে তা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ও সরকার পতন আন্দোলনের জন্য মহানগর বিএনপি প্রস্তুত রয়েছে। কারণ মিথ্যাবাদী হাসিনা সরকারকে সরাতে হলে আন্দোলনের বিকল্প নেই।’

অপরদিকে শমসের মবিন চৌধুরী সম্পর্কে কটূক্তির প্রতিবাদে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের উদ্যোগে নগরীতে মিছিল বের করা হয়। সোমবার বিকেলে বের হওয়া বিক্ষোভ মিছিলটি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহানগর বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়।

উল্লেখ্য, গত রোববার ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির সামনে বাংলাদেশ কৃষকলীগ আয়োজিত রক্তদান কর্মসূচি ও আলোচনা সভায় দেয়া বক্তব্যে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরীকে নিয়ে কটূক্তি করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি শমসের মবিনকে বেইমান আখ্যায়িত করে বলেন, ‘জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিভিন্ন দূতাবাসে পুনর্বাসন করেন। ওই দায়িত্ব পড়ে আজকের শমসের মবিন চৌধুরীর ওপর। তাকে বঙ্গবন্ধু জার্মানিতে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছিলেন। কিন্তু বেঈমান চিরকালই বেঈমান। এটা হয়তো অনেকে জানেন না।’






মন্তব্য চালু নেই