মেইন ম্যেনু

প্রথমবার অমিতাভ বচ্চনের বিষয়ে মুখ খুললেন ঋষি কাপূর

অমিতাভ বচ্চন ও ঋষি কাপূরের মধ্যে সম্পর্কটা খুব সহজ যে নয়, সেটা এবার জলের মতো পরিষ্কার আর সেই ব্যাপারে আলোকপাত করলেন স্বয়ং ঋষি কাপূর।

অমিতাভ বচ্চন যে সময় বলিউডের এক নম্বর স্থান দখল করে বসে আছেন, সেই সময়েই বলিউডে পা রাখেন ঋষি। অমিতাভের থেকে বয়সে প্রায় দশ বছরের ছোট ঋষি কাপূর। কিন্তু বেশ কয়েকটি হিট ছবিতে অমিতাভের সহ-অভিনেতা ছিলেন ঋষি। ‘কভি কভি’, ‘কুলি’ বা ‘অমর আকবর অ্যান্টনি’-র মতো ছবির জনপ্রিয়তায় অমিতাভের পাশাপাশি ঋষি কাপূর বা অন্যান্য অভিনেতাদেরও অনেকটা অবদান রয়েছে।

কিন্তু ঋষি কাপূরের বক্তব্য, অমিতাভ কখনওই তাঁর সহ-অভিনেতাদের এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানাননি।

অমিতাভ বরাবরই তাঁর ছবির সাফল্যের জন্য লেখক, চিত্রনাট্যকার, পরিচালক-প্রযোজকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন কিন্তু কখনও, কোনও সাক্ষাৎকারে বা কোনও লেখায় তিনি সহ-অভিনেতাদের কথা উল্লেখ করেননি বলে অভিযোগ ঋষি কাপূরের। সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ঋষি কাপূরের আত্মজীবনী ‘খুল্লমখুল্লা’। সেখানেই
এই প্রসঙ্গটি নিয়ে লিখেছেন ঋষি কাপূর। তিনি লিখেছেন যে শুধু তিনি নন, ধর্মেন্দ্র, শত্রুঘ্ন সিংহ, শশী কাপূরদের মতো অভিনেতাদের সঙ্গেও তো অমিতাভ কাজ করেছেন এবং ‘দিওয়ার’ হোক বা ‘শোলে’ প্রত্যেকটি ছবির সাফল্যের পিছনে ওই অভিনেতাদের কৃতিত্বও বড় ভূমিকা নিয়েছিল। অথচ অমিতাভ সেকথা কখনও সেভাবে বলেননি।

এই প্রসঙ্গে তিনি এও বলেছেন যে সত্তরের দশকে চিত্রনাট্যকাররা সকলেই অমিতাভের ‘অ্যাংরি ইয়ং ম্যান’ ইমেজের কথা মাথায় রেখেই চিত্রনাট্য লিখতেন। ঋষি কপূরের লেখা এই বইটি অমিতাভ এখনও পড়ে দেখেছেন কি না জানা নেই, পড়লে তিনি কী বলবেন তারই অপেক্ষা এখন।-এবেলা






মন্তব্য চালু নেই