মেইন ম্যেনু

পৃথিবী ঠাণ্ডা রাখে পিঁপড়া

পিঁপড়া পৃথিবী ঠাণ্ডা রাখতে পারে বলে জানিয়েছে পরিবেশ বিজ্ঞানীরা। বিশ্বের উষ্ণায়ণ কমাতে অন্যান্য প্রাণীর চেয়ে পিঁপড়ের ভূমিকা বেশি কারণ মাটির নিচে পরিবেশ থেকে সংগ্রহ করা কার্বন ডাইঅক্সাইড জমিয়ে পৃথিবীকে ঠান্ডা রাখার কাজ করে পিঁপড়া।

পরিবেশ বিজ্ঞানীরা আরও জানান, পিঁপড়াদের যত সংখ্যা বাড়ছে ততই ঠাণ্ডা হচ্ছে পৃথিবীর ভূপৃষ্ঠ। শুধু তাই নয়, আবহাওয়া পরিবর্তনেও ভূমিকা রাখছে পিঁপড়ার দল।

বিজ্ঞানী দলের সদস্য আরিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রোনাল্ড ডর্ন জানান, কিছু কিছু প্রজাতির পিঁপড়া খনিজের ক্ষয় ঘটিয়ে ক্যালসিয়াম কার্বোনেট বা চুনাপাথর সৃষ্টি করে। এর ফলে পরিবেশ থেকে অল্প পরিমানে হলেও কার্বন ডাইঅক্সাইড দূর করা সম্ভব হচ্ছে। বাতাস থেকে এই গ্যাসের পরিমান কমার ফলে কমছে পৃথিবীর উত্তাপ।

বিজ্ঞানীদের ব্যাখ্যা অনুযায়ী ব্যাসল্ট বালি ক্ষয় করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে পিঁপড়েরা। মাটির উপর পড়ে থাকা ব্যাসল্ট বালি প্রাকৃতিক উপায়ে রূপান্তর হতে যে সময় নেয়, পিঁপড়ারা তার চেয়ে ৫০ কিংবা ৩০০গুন দ্রুত এই রূপান্তর ঘটাতে পারে। চুনাপাথর তৈরি করতে পিঁপড়েরা খনিজ থেকে ম্যাননেসিয়াম ও ক্যালসিয়াম সংগ্রহ করে। আর এই পদ্ধতিতেই মাটির নিচে পাথরের ভিতর কার্বন ডাইঅক্সাইড আটকে দেয় খুদে পিঁপড়ার দল। বাতাস থেকে ক্ষতিকারক গ্রীনহাউস গ্যাস হিসেবে পরিচিত কার্বন ডাইঅক্সাইড বাদ যাওয়ার ফলে কমে যায় বিশ্বের উত্তাপ।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই