মেইন ম্যেনু

পুলিশের সঙ্গে বাম নেতাদের ধস্তাধস্তি, অনশনে অসুস্থ মিশু

তোবা গ্রুপের শ্রমিকদের বেতন ও বোনাস আদায়ের দাবিতে বাড্ডার প্রধান সড়কে সমাবেশ শেষে মিছিলে করতে চাইলে পুলিশের বাধার মুখে পড়েন বাম সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। এসময় পুলিমেল সঙ্গে তাদের ধস্তাধস্তি হয়। একই দাবিতে অনশনে অংশ নিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন পোশাক শ্রমিক নেত্রী ও বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফেডারেশনের সভাপতি মোশরেফা মিশু।

বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এম এ জলিল জানান, সমাবেশ শেষ করে মূল সড়কে মিছিল করতে চাইলে বাম দলের নেতাকর্মীদের বাধা দেয় পুলিশ। এসময় দুপক্ষের মধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। তবে কেউ আহত হয়নি।

শনিবার সকাল থেকে মোশরেফা মিশু শ্রমিকদের সঙ্গে অনশনে অংশ নিয়ে বিক্ষোভ করতে করতে সড়ক অবরোধ করে সেখানে সমাবেশে বক্তব্য দেন। এর কিছুক্ষণ পরই তিনি আবারো শ্রমিকদের সঙ্গে অনশনে যোগ দিতে এসেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। বর্তমানে তাকে স্যালাইন দিয়ে কারখানার ভেতরে রাখা হয়েছে।

বেলা ১১টার পর তোবা শ্রমিকরা সড়ক অবরোধের চেষ্টা করলে বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এম এ জলিলের নেতৃত্বে শ্রমিকদের ধাওয়া করে আবারো কারখানার ভেতরে অবস্থান নিতে বাধ্য করে পুলিশ। পারে বাইরে বাড্ডার মূল সড়কে সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমের নেতৃত্বে অন্যান্য কারখানার শ্রমিকদের নিয়ে সমাবেশ করেন বাম নেতারা।

উল্লেখ্য, তোবা গ্রুপের প্রায় ১৬শ শ্রমিকের তিন মাসের বকেয়া বেতন ও ঈদের বোনাস আদায়ের জন্য গত সোমবার সন্ধ্যা থেকে বাড্ডা এলাকায় তোবা গার্মেন্টসের ভবন ঘেরাও করে অনশন কর্মসূচি শুরু করে শ্রমিকরা। এরপর ঈদের দিন পেরিয়ে গেলেও প্রশাসন ও মালিকপক্ষের কেউ অনশনরত শ্রমিকদের খবর নেয়নি।

এর মধ্যে বৃহস্পতিবার বিজিএমইএ সংবাদ সম্মেলন করে ঘোষণা দেয়, চলতি সপ্তাহের মধ্যে বেতন-ভাতা পরিশোধ করা হবে। কিন্তু বিজিএমইএ’র এমন আশ্বাসে শ্রমিকরা ভরসা করতে পারছে না। তাই শনিবার থেকে লাগাতার বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা দেয় শ্রমিকরা। আর এ আন্দোলনে সমর্থন জানিয়েছে বাম সংগঠনগুলো।






মন্তব্য চালু নেই