মেইন ম্যেনু

পুলিশকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছুঁড়ল নারী জঙ্গি

মৌলভীবাজার শহরের বড়হাট জঙ্গি আস্তানা থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে এক নারী জঙ্গি গ্রেনেড ছুঁড়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বুধবার বিকাল ৩টায় বড়হাট জঙ্গি আস্তানা এলাকায় কর্তব্যরত রাজনগর থানার ওসি শ্যামল বনিক যুগান্তরকে এ কথা জানান।

এছাড়া সকাল থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত পুলিশের সঙ্গে কমপক্ষে দুইশ’ রাউন্ড গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে বলেও জানান তিনি।

শ্যামল বনিক বলেন, সকাল থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত পুলিশের সঙ্গে জঙ্গিদের কমপক্ষে দুইশ’ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়েছে। যে বাসায় জঙ্গিরা অবস্থান করছে তার কাঁচের গ্লাস ভেদ করে গুলি ভেতরে প্রবেশ করছে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, অভিযানকালে বড়হাটের বাসা থেকে এক নারী জঙ্গি পুলিশকে লক্ষ্য করে দুটি গ্রেনেড ছুঁড়েছে। এরমধ্যে একটি গ্রেনেড বিস্ফোরিত হলেও আরেকটির বিস্ফোরণ ঘটেনি।

রাজনগর থানার ওসি জানান, ওই বাসার ভেতরে দুজন পুরুষ ও একজন নারীর অবস্থান নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। তবে যেভাবে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়েছে জঙ্গিরা, তাতে মনে হচ্ছে তাদের কাছে প্রচুর অস্ত্র মজুদ রয়েছে।

মৌলভীবাজার পৌর শহরের বড়হাট ও সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের ফতেহপুর (নাসিরপুর) গ্রামের দুটি পৃথক বাড়িতে জঙ্গিরা আস্তানা গেড়েছে। খবর পেয়ে বুধবার ভোর থেকে বাড়ি দুটি ঘিরে রাখে আইনশৃংখলা বাহিনী।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দুটি বাড়িরই মালিক যুক্তরাজ্য প্রবাসী সাইফুর রহমান। বর্তমানে তিনি প্রবাসে অবস্থান করছেন।

ঘটনাস্থলে মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান বলেন, মৌলভীবাজার একটি শান্তিপ্রিয় শহর। এখান জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়ার ঘটনায় মেয়র হিসেবে মর্মাহত।

তিনি জানান, শহরের কোনো বাসায় যাতে জঙ্গি আস্তানা গড়ে ওঠতে না পারে তার জন্য প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই