মেইন ম্যেনু

পাহাড় ও হাওর অঞ্চলে হবে আবাসিক স্কুল : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘পাহাড় ও হাওর অঞ্চলে আবাসিক স্কুল করার নির্দেশ দিয়েছি। কারণ হাওর এলাকায় পানি পার হয়ে আসাটা ঝুঁকি। পাহাড় এলাকায়ও মাইলের পর মাইল হাঁটতে হয়। সেখানেও তাদের জন্য কষ্ট। সেক্ষেত্রে আবাসিক স্কুলটাই ভালো হবে।’

রোববার শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট ফান্ডের উপদেষ্টা পরিষদের বৈঠকে এ কথা জানান প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

সবার জন্য শিক্ষা নিশ্চিত করতে সরকার উপবৃত্তির অর্থ সরাসরি শিক্ষার্থীর মায়ের মোবাইল ফোনে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে বলে জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘সবাই উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করবে না এমন কথা চিন্তা করে অষ্টম শ্রেণির পর কারিগরিও বিজ্ঞান শিক্ষার ওপর সরকার গুরুত্ব দিয়েছে।’ স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধুই প্রাথমিক শিক্ষাকে অবৈতনিক করে সবার জন্য শিক্ষা বাধ্যতামূলক করেছিলেন বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

দেশে সবার জন্য উচ্চ শিক্ষা নিশ্চিত করতে সরকার শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট গঠন করেছে। এরইমধ্যে এই ট্রাস্ট ফান্ডে এক হাজার কোটি টাকা জমা হয়েছে। এই ২০১২-১৩ অর্থবছর থেকে এ পর্যন্ত এ তহবিলের অর্থে ১১ লাখ ৮০ হাজার ৫১০ জনকে উচ্চ শিক্ষার জন্য বৃত্তি দেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন, শুধু বৃত্তি নয় শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করতে-তার সরকার শিক্ষা ব্যবস্থার অবকাঠামো উন্নয়নের দিকেও গুরুত্ব দিয়েছে।

পাকিস্তান আমলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে করা গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশ করবে সরকার। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইন্টেলিজেন্স ব্রাঞ্চ বা আইবি বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে যেসব রিপোর্ট তৈরি করেছে, সেগুলোকে ক্লাসিফায়েড করা হয়েছে ওগুলো আমরা তাড়াতাড়ি প্রকাশ করতে যাচ্ছি।’

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই বীরশ্রেষ্ঠ, দুই বীর উত্তম, দুই বীর বিক্রম এবং ছয় বীর প্রতীকের প্রত্যেক পরিবারের সদস্যদের হাতে তিন লাখ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক তুলে দেন।






মন্তব্য চালু নেই