মেইন ম্যেনু

পাবনার সর্বহারা দলের সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

রবিউল ইসলাম শাহীন, জেলা প্রতিনিধি পাবনা : পাবনার আমিনপুরে কোবাদ আলী নামে এক জনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি নিষিদ্ধ ঘোষিত সর্বহারা পার্টির সদস্য ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধের সন্ত্রাসের অভিযোগ রয়েছে।

রবিবার সকালে একটি বাবলা বাগান থেকে কোবাদের মরদেহ উদ্ধার হয়। তিনি বেড়া উপজেলার কাকশিমুল গ্রামের মৌজা শিকদারের ছেলে।

আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাজুল হুদা জানান, গত রাতে দৃর্বৃত্তরা বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে কোবাদকে স্থানীয় বাবলা বাগান নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। সকালে স্থানীয়রা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়।

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরো জানান, পাবনা, রাজবাড়ী জেলায় কোবাদের বিরুদ্ধে ডাকাতি, হত্যা, ছিনতাইসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

কোবাদকে কারা হত্যা করেছে সে বিষয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে না পারলেও পুলিশের ধারণা, সংগঠনে কোন্দলকে কেন্দ্র করে এই খুন হয়ে থাকতে পারে।

যেসব এলাকায় চরমপন্থি সংগঠনগুলোর তৎপরতা আছে, তার মধ্যে পাবনা একটি। মুক্তিযুদ্ধের পর পর শ্রেণি সংগ্রামের কথা বলে অস্ত্র তুলে নিলেও পরে এসব সংগঠনের নেতা-কর্মীরা ডাকাতি, লুটপাট, চাঁদা আদায়, হত্যাসহ নানা অপরাধে জড়ায়। অপরাধে জড়িয়ে পড়ার পর পরে সরকার বামপন্থি এসব সংগঠনকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। উত্তরবঙ্গ এবং দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলেই এদের তৎপরতা বেশি।

পুলিশের ধারাবাহিক অভিযানে নিষিদ্ধঘোষিত চরমপন্থিরা দুর্বল হয়ে আসলেও এখনও তাদের গোপন তৎপরতা চালু আছে। আর নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্বে খুনোখুনি একটি সাধারণ চিত্র।






মন্তব্য চালু নেই