মেইন ম্যেনু

‘পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশ সীমান্ত সিল’

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত সিল করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। বুধবার কলকাতা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

একই সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে ক্রমবর্ধমান দুর্নীতি ও অনুন্নয়নের অভিযোগ তুলে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে দোষারোপ করেন তিনি।

অমিত শাহ বলেন, ‘বাংলার পরিস্থিতি আজ খুবই উদ্বেগজনক। বাম শাসনের অবসানের পর তৃণমূলে শাসনকালে রাজ্যের উন্নয়ন হয়নি। সারদা থেকে নারদা-প্রতিটি ঘটনাতেই পরিষ্কার যে দুর্নীতি এ রাজ্যে বেড়ে চলেছে। সব কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে। রাজ্যে এখন শুধুমাত্র বোমা তৈরির কারখানা আছে।’

জাল নোট পাচারের ঘটনাতেও তৃণমূলকে বিঁধেছেন অমিত শাহ। তিনি বলেন, ‘নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের পর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী সবথেকে বেশি বিরোধীতা করেছিল। কিন্তু জাল নোটের রমরমা ঠেকাতে কোন উদ্যোগ নেয়নি। বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের ঠেকাতেও ব্যর্থ রাজ্য সরকার।’

তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক তোষণের অভিযোগ তুলে বিজেপি সভাপতি বলেন, ‘এই তোষণনীতির ফলেই পশ্চিমবঙ্গে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। দুর্গাপূজা বিসর্জনের জন্য আদালতের কাছে অনুমতি নিতে হয়। স্বরস্বতী পূজা হচ্ছে না। এটা খুবই লজ্জার।’

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলে সীমান্ত সিল করে দেয়া হবে বলেও এদিনের সংবাদ সম্মেলন থেকে ঘোষণা দেন অমিত শাহ।

সংবাদ সম্মেলনে অমিত শাহের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রের মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়, রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয় বর্গীয়, বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা রাহুল সিনহা।






মন্তব্য চালু নেই