মেইন ম্যেনু

নীলফামারীতে খানা ভিত্তিক তথ্য ভান্ডার শুমারি কার্যক্রম শুরু

হামিদা আক্তার, নীলফামারী থেকে : আনুষ্ঠানিক ভাবে খানা তথ্য ভান্ডার শুমারি-২০১৭ কার্যক্রম শুরু হয়েছে নীলফামারী জেলায়। মঙ্গলবার ০৪এপ্রিল সকাল দশটায় জেলা শহরের ৮নং ওয়ার্ডের শুমারি কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ জাকীর হোসেন। সেখানকার বাসিন্দা জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী রবিউল আলমের বাড়িতে খানা তথ্য সংগ্রহের মাধ্যমে জেলায় শুমারি কার্যক্রমের শুভ সুচনা করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নীলফামারী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন, জেলা শুমারি সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলাম, উপজেলা শুমারি সমন্বয়কারী মাজহারুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। জেলা শুমারি সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলাম জানান, ৪এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেজ’র(এনএইচডি) আওতায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে খানা ভিত্তিক তথ্য ভান্ডারের জন্য শুমারি কার্যক্রম শেষ হবে ২৩এপ্রিল।

তিনি জানান, কার্যক্রম পরিচালনায় ২জন জেলা শুমারি সমন্বয়কারীর তত্ববধানে ৬জন উপজেলা সমন্বয়কারী, ৮৪জন যোনাল অফিসার, এক হাজার সুপারভাইজার এবং ২৫’শ গণনাকারী মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো’র আয়োজনে শুমারি কার্যক্রমে সহযোগীতা করছে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা টিএমএসএস ও ভারতীয় আইটি সংস্থা জিরোক্স। পরিসংখ্যান ব্যুরো নীলফামারী উপ-পরিচালকের কার্যালয় সুত্র জানায়, শুমারি কার্যক্রম পরিচালনায় উপজেলা সমন্বয়কারী, যোনাল অফিসার, সুপারভাইজার ও গণনাকারীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে কার্যক্রম সুষ্ঠভাবে সম্পন্নে। প্রথম পর্যায়ে রংপুর, বরিশাল ও ময়মনসিংহ বিভাগে এনএইচডি কার্যক্রম সম্পন্ন হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে দেশের সব জেলায় শুমারি সম্পন্ন হবে বলে জানায় দফতরটি।






মন্তব্য চালু নেই