মেইন ম্যেনু

নির্বাচন ও জঙ্গি সন্ধান, থমথমে ভোটের শহর কুমিল্লা

জঙ্গি আস্তানা রয়েছে এমন খবরে গন্ধামতী-দক্ষিণ বাগমারা এলাকার ভাড়াটিয়ারা অনেকেই তাদের বাসাবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ এলাকায় চলে যাচ্ছে।ভোটর ও প্রার্থীদের মধ্যে এক ধরনের অস্থিরতা কাজ করছে।

এদিকে গত কয়েকদিন সিলেটের শিববাড়ির ঘটনায় পুরো দেশের মানুষ আতঙ্কিত ছিলো। এমন অবস্থায় ভোটের আগে জঙ্গি আস্তানার সন্ধান কুমিল্লাবাসীকে থমকে দিয়েছে।

বুধবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে বিপুল পরিমাণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য বাড়িটিকে ঘিরে রেখেছে। সংবাদকর্মীদের ব্যস্ততা আর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় গন্ধামতী-দক্ষিণ বাগমারা এলাকাটিতে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

অন্যদিকে বুধবার বিকালে এক প্রতিক্রিয়ায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা জানয়েছেন,নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে জঙ্গি আস্তানায় কোনো ধরনের অভিযান চালানো হবে না।

তিনি বলেন,প্রয়োজন হলে ভোট শেষ হওয়ার পর এখানে অভিযান চালানো হবে। জঙ্গি আস্তানার ঘটনায় কুসিক নির্বাচনে কোনও প্রভাব পড়বে না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

প্রতিক্রিয়ায় সিইসি নুরুল হুদা বলেন, ‘কুমিল্লার কোটবাড়ীর ঘটনা সম্পর্কে আমরা অবহিত হয়েছি। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। ভোট শেষ হওয়ার আগে এখানে কোনও ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে না। ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত জায়গাটি কর্ডন করে রাখা হবে।’

এ বিষয়ে জানতে কুমিল্লার পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন বলেন, ‘কোটবাড়ীতে এ ধরনের একটি ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি আমাদের নজরে আছে। তবে এখানে অভিযানের বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।’






মন্তব্য চালু নেই