মেইন ম্যেনু

নিজেই তৈরি করে ফেলুন পছন্দসই ফ্লেভারের টি-ব্যাগ

চা পান করতে পছন্দ করেন না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দায়। বিশেষ করে শীতকালে একটু ঘন ঘন চা-কফি পান করেন অনেকেই। চা ভালোবাসেন এমন মানুষ জানেন, টি ব্যাগ কেনার চাইতে খোলা চাপাতা কেনাটা অনেক সস্তা। বাজার থেকে টি ব্যাগ না কিনে আপনি নিজেই যদি তৈরি করে নিতে পারেন টি ব্যাগ, তাহলে কেমন হয়? আর এসব টি ব্যাগের চায়ে আপনি যোগ করে নিতে পারেন নিজের পছন্দসই ফ্লেভার! আর দেরি নয়, আসুন দেখে নেই নিজের মনের মতো টি ব্যাগ তৈরির প্রণালীটি।

যা যা দরকার হবে

– এক কাপ চাপাতা
– ছোট বোল
– কফি ফিল্টার/ফিল্টার পেপার (আপনি যদি কাগজের টি ব্যাগ তৈরি করতে চান)
– পাতলা সুতি অথবা মসলিন কাপড় (যদি কাপড়ের টি ব্যাগ তৈরি করতে চান)
– নিজের পছন্দমতো শুকনো মশলা যেমন দারুচিনি, লবঙ্গ, শুকনো আদা, রোজমেরি, পুদিনা পাতা, তুলসি পাতা, থাই গ্রাস ইত্যাদি
– লেবু অথবা কমলার খোসা, গ্রেট করা
– সুই-সুতো
– কাঁচি
– স্ট্যাপলার
– একটু শক্ত রঙ্গিন কাগজ এবং কলম
– শক্ত সুতো

যা করতে হবে

১) একদম সাধারণ চায়ের টি ব্যাগ তৈরি করতে পারেন অথবা চাপাতার সাথে মশলা এবং লেবুর খোসা কুচি মিশিয়ে দারুণ ফ্লেভারের চা তৈরি করতে পারেন। বোলে চাপাতা নিয়ে এর সাথে মশলা এবং লেবুর খোসা মিশিয়ে নিন ভালো করে।

teabag_01

২) ফিল্টার পেপার বা কফি ফিল্টার ভাঁজ করে কেটে নিন ছবির মতো করে। এর ভেতরে এক চা চামচ চাপাতা দিয়ে ভাঁজ করে বন্ধ করে নিন। ভাজের ভেতরে এক টুকরো সুতো দিয়ে স্ট্যাপল করে নিন। ইচ্ছে হলে সেলাই করেও বন্ধ করে নিতে পারেন।

৩) কাপড়ের টি ব্যাগ তৈরি করতে চাইলে পাতলা কাপড়কে চৌকো করে সেলাই করে নিন, একটা দিক খোলা রাখুন। এদিক দিয়ে চা ভেতরে ঢুকিয়ে ভাঁজ করুন এবং সেলাই করে বন্ধ করে দিন। এই টি ব্যাগের সাথে সেলাই করে আটকে দিন শক্ত সুতো। অথবা ইচ্ছে হলে ছোট্ট বটুয়ার মতো টি-ব্যাগও তৈরি করে নিতে পারেন, এর ভেতরে চাপাতা ভরে বার বার ব্যবহার করা যাবে।

reuse bags3

৪) রঙ্গিন কাগজ থেকে একটা টুকরো কেটে নিন এবং চায়ের ফ্লেভারের নাম লিখে এটা আটকে দিন সুতোর অপর প্রান্তে। ইচ্ছে হলে ছোট বোতাম, কড়ি, পুঁতিও ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যাস, তৈরি হয়ে গেলো দারুণ ঘরোয়া টি ব্যাগ। একটি বাক্সে রেখে নিজে ব্যবহার করতে পারেন অথবা উপহারও দিতে পারেন।

টিপস:

– কাপড়ের টি ব্যাগ তৈরির জন্য একদম সাদা, মাড় এবং ব্লিচ ছাড়া কাপড় ও সুতো ব্যবহার করবেন।

– কাগজের টি ব্যাগ তৈরির জন্য ফিল্টার পেপার বা কফি ফিল্টার না পেলে অন্য কোনো কাগজ ব্যবহার করবেন না। বিশেষ করে পেপার ন্যাপকিন বা পেপার টাওয়েল ব্যবহার করবেন না। এগুলোতে কেমিক্যাল থাকে যা আপনার জন্য মোটেই ভালো নয়।






মন্তব্য চালু নেই