মেইন ম্যেনু

নারীকে ‘হেনস্থা’র দায়ে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার!

ওয়াজা তুম হো ছবিতে অন্তরঙ্গ দৃশ্যে অভিনয় করার পর সানা খান এখন টক অফ দি টাউন। ১৯৮৮ সালে ২১ অগাস্ট মুম্বাইয়ে জন্ম হয় সানার। সানা খানের মা মুম্বাইয়ের এবং বাবা কেরলের বাসিন্দা। সান খান একজন মডেল ও অভিনেত্রী। মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি।

মুম্বাইয়ে হাইস্কুল থেকে বেরনোর পরই মডেলিং শুরু করেন। তারপর আর পড়াশোনা করেননি। অল্প বয়সেই মডেলিংয়ে সাফল্য অর্জন করেন। ২০০৫ সালে ইয়ে হ্যায় হাই সোসাইটি ছবির হাত ধরে বলিউড জার্নি শুরু করেন। বেশকিছু টেলিভিশন ধারাবাহিকেও কাজ করেছেন সানা।

একধিক বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। শাহরুখ খান, অক্ষয় কুমার, হৃতিক রোশন এবং ধোনি ও যুবরাজের মতো সেলিব্রিটিদের সঙ্গে বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন।

ক্যারিয়ারের শুরুতে মডেলিং ও অভিনয়ে খ্যাতি অর্জন করতে না পারলেও নানা বিতর্কের কারণে আলোচনায় ছিলেন সানা। একাধিকবার নানা অভিযোগ ওঠে সানা ও তাঁর প্রেমিকের বিরুদ্ধে। এক নারীকে (—) হেনস্থার অভিযোগে গ্রেপ্তার হন সানা খান ও তাঁর বিশেষ বন্ধু ইসমাইল খান ও পরিচারক রামু কানোজিয়া। পরে অবশ্য বিচারক তাঁদের জামিনের আর্জি মঞ্জুর করেন। ক্রমশ বাড়ে তাঁর পরিচিতি। ধন ধনা ধন গোল, হাল্লা বোল, জয় হো-র মতো কয়েকটি বলিউডি ছবিতে তাঁকে দেখা গেলেও বিশেষ সাড়া জাগাতে পারেননি তিনি। এক শিশুকন্যাকে অপহরণ, ভাইয়ের নাবালিকা প্রেমিকাকে অপহরণের মতোও অভিযোগ উঠেছিল সানার বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগে গ্রেপ্তারও হন সানা। পরে অবশ্য জামিন পেয়ে যান। বিগ বসের পরই সালমান খানের বন্ধু তালিকায় চলে আসেন সানা। সেইসঙ্গে “জয় হো” ছবিতে কাজ করার সুযোগ পান। ওয়াজ়া তুম হো ছবিতে সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করে রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী সানা খান।






মন্তব্য চালু নেই