মেইন ম্যেনু

নাবালিকা ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত টেনিস কোচ

তিন নাবালিকা টেনিস শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি এবং ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত এবার টেনিস কোচ। আর বুধবার প্রকাশিত এই ঘটনা ফ্রান্সসহ গোটা টেনিস অঙ্গণে সাড়া ফেলেছে।
যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সির ৪৮ বছর বয়সী টেনিস কোচ অ্যান্ড্রু গিডেস ১৯৯৯ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত সময়কালে ফ্রান্সের রাজধানীর নিকটবর্তী সারসেলেস- এর একটি টেনিস ক্লাবে কোচের দায়িত্ব পালন কালে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী তিন ছাত্রীকে অনেকবার যৌন হয়রানি এবং ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগে প্রকাশ পায়। আরএ অভিযোগে ইতিমধ্যেই তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে।
রবার্ট গেলি নামক প্যারিসের একজন আইনজীবী এ বিষয়টি এএফপিকে নিশ্চিত করেন।
গিডেসের এই তিন ছাত্রী বিভিন্ন সময় কোচের জন্য বরাদ্দকৃত বাসায়, তার গাড়িতে, ক্লাবে এবং বিদেশ সফরের সময় নির্যাতিত হয়েছেন বলে জানা গেছে। আদালতের একটি সুত্র জানায়, এই তিন ছাত্রী তাদের মুখ কখনোই খোলেনি কারণ তারা জানতো তারা কোচের অধীনেই আছে। ফলে তারা কোচের এই নিপীড়ন সহ্য করে গেছে।
ফরাসী টেনিস অঙ্গণে এ ঘটনা অবশ্য নতুন নয়। গত ফেব্রুয়ারিতে একজন শীর্ষ কোচ রেজিস দ্য কামারে দুজন নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত হন এবং তাকে আট বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। পরে আরও দুজন নাবালিকা তার বিরুদ্ধে মুখ খুললে সাজা আরও দু বছর বেড়ে যায় তার।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই