মেইন ম্যেনু

নতুন নিয়ম চালু করতে যাচ্ছে আইসিসি, ডেকেছে জরুরী বৈঠক

২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে তীব্র প্রতিবাদের মুখে বিশ্ব ক্রিকেটের তিন মোড়ল দ্বিস্তর টেস্ট পরিকল্পনা থেকে পিছু হটতে বাধ্য হয়েছিল। কিন্তু তিন মোড়ল আবারও টেস্ট ক্রিকেটকে দুই স্তরে ভাগ করার পরিকল্পনা করছে! ফের নতুন নিয়ম চালু করতে যাচ্ছে আইসিসি। এ নিয়ে জরুরী বৈঠক ডাকা হয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) পরবর্তী সভায় আবারও দ্বিস্তর টেস্ট নীতি নতুনভাবে উপস্থাপন করা হবে। দুবাইয়ে আইসিসি হেড কোয়ার্টারে ২ ও ৩ ফেব্রুয়ারি আইসিসির পূর্ণ সদস্যভুক্ত দেশগুলোকে নিয়ে বোর্ড সভায় বসবে আইসিসি।

সেখানে নতুন ফরম্যাটে সদস্যভুক্ত দেশগুলোর প্রতিনিধিদের দ্বিস্তর নীতির ‘সুবিধা’ বোঝানো হবে! অবশ্য দ্বিস্তর নীতির একটি খসড়া প্রস্তাব এরই মধ্যে সদস্যভুক্ত দেশগুলোর ক্রিকেটবোর্ডের কাছে পাঠিয়েছে

আইসিসি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বিশেষ সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বোর্ড এখনও নতুন দ্বিস্তর টেস্ট পরিকল্পনা সম্পর্কে পুরোপুরি অবগত নয়। পুরোপুরি ধারণা পাওয়ার পরই দ্বিস্তর টেস্ট নীতির পক্ষে-বিপক্ষে অবস্থান নিবে বোর্ড।

এ নিয়ে ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেছেন, ‘আমরা খসড়া একটি প্রস্তাব পেয়েছি। পুরো প্রস্তাব না পড়ে এখনই কোনো মন্তব্য করা ঠিক হবে না। তবে ধারণা করছি, আইসিসি ১০টি দেশকে দুই ভাগ করে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজনের পরিকল্পনা করছে। তবুও ভিতরের অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা করতে হবে।’

এদিকে বিসিবি সভাপতি পূর্বে সাফ জানিয়েছিলেন, দীর্ঘমেয়াদে বাংলাদেশের ক্রিকেটের ক্ষতি হবে আইসিসির এমন কোনো প্রস্তাবে কখনই রাজী হবে না বোর্ড।এবারও তার কন্ঠে একই সুর।

তার ভাষ্য, ‘দেখা যাক নতুন প্রস্তাব আমাদের ক্রিকেটের জন্য কী নিয়ে আসে! আমরা এটা নিয়ে বোর্ড সভায় বিস্তারিত আলোচনা করব। পূর্বে কোনো দলই আমাদের সঙ্গে টেস্ট খেলতে চাইতো না।

যদি ওই পরিকল্পনায় আমাদের সমান বা আমাদের চেয়ে বেশি শক্তিশালী দলের বিপক্ষে বেশি টেস্ট খেলার সুযোগ পাই তাহলে আমরা এতে রাজী হতে পারি। তবুও এখানে অনেক কিছু আলোচনা করতে হবে। সেগুলো ইতিবাচক হলেই আমরা চিন্তা করব।’

গত বছর তিন মোড়লের পরিকল্পনায় সমর্থন দিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান ও ওয়েস্টইন্ডিজ । তবে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের কঠোর আপত্তিতে দ্বিস্তর টেস্ট পদ্ধতির প্রস্তাব থেকে সরে দাঁড়ায় আইসিসি।






মন্তব্য চালু নেই