মেইন ম্যেনু

ধর্ষণের অভিযোগ তুলে নিতে ৫০ লাখ টাকা ঘুষ!

ধর্ষক শিক্ষককে বাঁচাতে কিশোরী ধর্ষিতার মাকে ৫০ লাখ টাকা ঘুষ দিতে চাইলেন সেই স্কুলের অধ্যক্ষ। পাশাপাশি গর্ভপাত ও পড়াশোনার ফ্রি ব্যবস্থা করারও লোভ দেখালেন তিনি। তবে শর্ত শুধু একটাই, তুলে নিতে হবে শিক্ষকের বিরুদ্ধে করা ধর্ষণ মামলা। ঘটনাটি ভারতের মুম্বাই শহরের নেরুলের।

৫ মাস আগে মুম্বাই শহরের নেরুলের এমজিএম স্কুলের শিক্ষক হরিশঙ্কর শুক্লা দিনের পর দিন ছাত্রীদের ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ ওঠে। তার পাশবিক অত্যাচারে ১৩ বছরের এক কিশোরী অন্তঃসত্ত্বাও হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় অভিভাবকদের বিক্ষোভে শুরু হয় তোলপাড়। পরে স্কুল ও অধ্যক্ষ সবিতা গুলাটিকে শো-কজ নোটিশ পাঠায় সিবিএসই কর্তৃপক্ষ। এরপরই স্কুল পরিচালন কমিটি এ বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দেয় এবং গুলাটিকে বরখাস্ত করে।

অভিভাবকদের অভিযোগ, তারা যখন প্রিন্সিপালের কাছে বিচার চেয়েছিলেন, তখন তিনি খারাপ ভাষায় কথা বলেন। ধর্ষণের ঘটনা সামনে আসার পর গুলাটি ধর্ষিতার মাকে ফোন করে ৫০ লাখ টাকা দিতে চেয়ে মামলা প্রত্যাহারে অনুরোধ জানান। পাশাপাশি হুমকি দিয়ে বলেন- আপনারা মধ্যবিত্ত, কিছুই করতে পারবেন না। অনেক ওপর পর্যন্ত আমাদের হাত রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই