মেইন ম্যেনু

দেয়াল ভেঙে ‘আতিয়া মহলের’ ভেতরে প্রবেশ করেছে কমান্ডোরা

সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ির জঙ্গি আস্তানা ‘আতিয়া মহলে’র দেয়াল ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করেছেন সেনাবাহিনীর কমান্ডোরা। সোমবার বেলা সোয়া ২টার দিকে কমান্ডোরা ভেতরে প্রবেশ করেছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এছাড়া আন্তঃবাহিনী গণসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) ওয়েবসাইটে সোমবার আপলোড করা একটি ভিডিও ক্লিপে কমান্ডোদের খুব সতর্কতার সঙ্গে দেয়াল ভাঙতে দেখা যায়।

এর আগে নাম প্রকাশ না করা শর্তে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সোমবারের মধ্যেই অভিযান শেষ করতে চান তারা। সেই লক্ষ্যেই ‘অপারেশন টোয়াইলাইট’ জোরদার করা হয়েছে।

সোমবার দুপুর ২টার পর থেকে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ও প্রচন্ড গুলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। ২টা ৩মিনিটের দিকে একটি বড় ধরণের বিস্ফোরণ ঘটে। বোমার বিকট শব্দে আশপাশের এলাকা প্রকম্পিত হয়। ধারণা করা হচ্ছে-একেবারে শেষ পর্যায়ে অভিযান চালাচ্ছেন কামন্ডোরা। এজন্য গুলি ও বিস্ফোরণের শব্দ বেড়েছে।

সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ি এলাকার পাঠানপাড়া সড়কের পাশে অবস্থিত পাঁচতলা বিশিষ্ট দুটি ভবনের নাম ‘আতিয়া মহল’। সিলেট নগরের আতিয়া ট্রাভেলসের স্বত্ত্বাধিকারী দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ির বান্দরঘাটের বাসিন্দা সাবেক সরকারি কর্মচারী উস্তার মিয়া।

এই বাড়িতে জঙ্গিরা আস্তানা গেড়েছে এমন সন্দেহে গত বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) রাত আড়াইটায় থেকে বাড়িটি ঘিরে রাখে পুলিশ। শুক্রবার দিনভর পুলিশ, সোয়াট ও সেনাসদস্যরা বাড়িটিকে ঘিরে রাখে। এসময় হ্যান্ডমাইকে করে বার বার সন্দেহভাজন জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়। তবে এতে সাড়া মিলেনি।

অবশেষে বাড়িটি ঘিরে রাখার প্রায় ত্রিশ ঘণ্টা পর চূড়ান্ত অভিযান ‘টোয়াইলাইট’ শুরু করেন সেনা সদস্যরা। সোবাহিনীর বিশেষায়িত সিলেট প্রথম প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়নের সদস্যরা আজ চতুর্থ দিনের মতো অপারেশন ‘টোয়াইলাইট’ অব্যাহত রেখেছে।






মন্তব্য চালু নেই