মেইন ম্যেনু

দেশ চালাচ্ছে আমলারা, ঘুষ না দিলে কাজ হয় না

রাজনীতিকরা নয়, দেশ চালাচ্ছেন আমলারা। তাদের ঘুষ না দিলে কোনো কাজ হয়না। শুক্রবার রংপুর বিভাগের জন্য `জাতীয় বাজেটে বিশেষ বরাদ্দ চাই’ শীর্ষক প্রাক বাজেট আলোচনায় এমন ক্ষোভ প্রকাশ করলেন বক্তারা।

শুক্রবার বিকেলে রংপুর নগরীর বেগম রোকেয়া অডিটরিয়ামে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আরডিআরএস আয়োজিত আলোচনায় অংশ নিয়ে মন্ত্রী-এমপি অকপটে এ অঞ্চলের উন্নয়ন বৈষম্যের কথা স্বীকার করলেন।

আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘রংপুর বিভাগের মানুষের অনেক প্রত্যাশা দীর্ঘদিন ধরে পুরণ হচ্ছেনা।’

তিনি অভিযোগ করেন- প্রশাসনের ওপর স্তরে ‘বড় কর্তারা’এ অঞ্চলের মানুষের কাজ করেন না। সেখানে আমাদের লোকজন নেই বলেই এ অবস্থা চলছে। সংস্কৃতি মন্ত্রনালয়ের কথা উল্লেখ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘জাতীয় বাজেটের সর্বনিম্ন স্থানে রয়েছে আমার মন্ত্রণালয়।’

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোতাহার হোসেন বলেন, ‘বৈষম্যের শিকার রংপুর বিভাগের মানুষকে আন্দোলন করেই দাবি আদায় করতে হবে। কেন আমরা গ্যাস পাবোনা। দেশের বেশিরভাগ স্থানে গ্যাস গেলেও আমরা পাবোনা কেন।’

তিনি বলেন, ‘রংপর সিটি করপেরেশন হয়েছে কিন্তু দেড় বছরেও বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি থেকে এক টাকাও বরাদ্দ দেয়া হয়নি। কেন এতো বৈষম্য। বাজেটে যে অর্থ বরাদ্দ দেখানো হয় তার পুরোটাই শুভঙ্করের ফাঁকি।’

রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র শরফউদ্দিন আহমেদ ঝন্টু বলেন, ‘১৫ মাস মেয়রের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে দেখলাম-দেশটা আমলারা চালাচ্ছে। তাদের ধরতে পারলে আর ঘুষ দিলে কাজ পাওয়া যায়।’

রংপুর বিভাগের কোনো কাজ হয়না কারণ মন্ত্রণালয় বরিশাল, নোয়াখালী, কুমিল্লা আর চাঁদপুর গ্রুপ যা করে তাই হয়। সব বৈষম্যের জন্য গোলটেবিল বৈঠক নয় আন্দোলন করে দাবি আদায় করতে হবে।’

আরডিআরএসের কর্মসূচি সমন্ময়কারি মঞ্জুশ্রী সাহার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোরশেদ আলী। সভায় রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে জনপ্রতিনিধিসহ সুশীল সমাজের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই