মেইন ম্যেনু

দুর্নীতি রুখতে এবার ভোটে প্রার্থী হলেন ৯৫ বছরের বৃদ্ধা

ভ্রুযুগলে কবেই পাক ধরেছে। চোখে মোটা কাচের চশমা। ঝুলে-পড়া কুঞ্চিত ত্বকে বার্ধক্যের আঁকিবুকি। চলাফেরার সর্বক্ষণের সঙ্গী বলতে একখানি লাঠি। সেই লাঠির ভরসায় তো আর বেশি দূর হাঁটা যায় না। তাই থাকে একটি হুইলচেয়ারও। বার্ধক্য তাঁর শরীরে থাবা বসালেও, দমাতে পারেনি এতটুকু। মনেমেজাজে আগের মতোই চনমনে।

উনি জলদেবী। মধ্য-নবতিপর বয়স হলেও যিনি এবার উত্তরপ্রদেশে ভোটে লড়ছেন, নির্দল হয়ে। কোনও রাজনৈতিক দলের রং গায়ে মাখেননি। মাখতেও চান না। কেন? প্রশ্ন শুনে রীতিমতো ঝাঁঝিয়ে উঠলেন। রাজনৈতিক দলগুলোর কর্মকাণ্ড দেখতে দেখতে তিনি যে বীতশ্রদ্ধ, তা জানতে সংকোচ নেই। বললেন, তাঁদের কমিউনিটির জন্য কোনও দল, কোনও নেতা কিছুই করেননি। তাই এই ৯৫ বছর বয়েসে ভোটের ময়দানে নামতে হচ্ছে।

খেড়াংগড় থেকে নির্দলের হয়ে নমিনেশেনও জমা দিয়েছেন জলদেবী। নিজেকে সেরা প্রার্থী বলেই মনে করেন। বললেন, ভোট জিতে নিজের কেন্দ্রে চুটিয়ে কাজ করতে চান। সমাজসেবার ক্ষেত্রে বয়স কোনও ফ্যাক্টর হবে না। চান, নিজের কেন্দ্র থেকে দুর্নীতি সমূল উত্‍‌পাটন করতে।

ভোটের লড়াইয়ে এ বারই প্রথম নয়। এর আগে জেলা পঞ্চায়েত ভোটে ১২ হাজার ভোটে জিতেছেন উত্তরপ্রদেশের এই প্রবীণা। সম্ভবত তিনিই সবচেয়ে বেশি বয়সে নির্বাচনে লড়ছেন। বললেন, ‘আমাকে হালকা ভাবে নিলে প্রতিপক্ষকে ভুগতে হবে কিন্তু।’-এই সময়






মন্তব্য চালু নেই