মেইন ম্যেনু

দীর্ঘ ২২ মাস পর রাসিকের দায়িত্ব নিচ্ছেন বুলবুল

আগামী রোববার স্বপদে ফিরছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। উচ্চ আদালতের নির্দেশে দীর্ঘ ২২ মাসের মাথায় নগর ভবনে ফিরছেন বিএনপির এ নেতা।

বুলবুলকে দায়িত্বভার দেয়ার নির্দেশ বাস্তবায়নে গত মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এরই মধ্যে চিঠি পাঠিয়েছে রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে। উপ-সচিব মাহমুদুল হাসান স্বাক্ষরিত ওই চিঠি ইস্যু করা হয়। নির্দেশনা বাস্তবায়নে ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে ওই চিঠিতে।

বৃহস্পতিবার চিঠি পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. শরিফ উদ্দিন। আগামী রোববার মোসাদ্দেক হোসেন স্বপদে ফিরছেন বলে নিশ্চিত করেছেন তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলও। তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বিভাগের তিন সদস্যের বেঞ্চ তাকে স্বপদে ফেরাতে আদেশ দেন। ফলে মেয়র হিসেবে তার দায়িত্ব পেতে কোনো বাধা নেই। আগামী রোববার তিনি দায়িত্ব নেবেন। এ সংক্রান্ত চিঠি মন্ত্রণালয় থেকে ইতিমধ্যে সিটি কর্পোরেশনে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এর আগে উচ্চ আদালতের চূড়ান্ত রায়ের কপি মন্ত্রণালয় ছাড়াও গত ২০ মার্চ রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক ও রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছে।

মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের আইনজীবী আমিনুল হক হেলাল গণমাধ্যমকে জানান, গত ৫ মার্চ প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ সরকারের দাখিল করা এ সংক্রান্ত লিভ টু আপিল খারিজ করে দেন।

চূড়ান্ত এ রায়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বুলবুলকে বরখাস্ত করা ও ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীমকে ‘দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র’ হিসেবে দায়িত্ব প্রদানকে চূড়ান্তভাবে অবৈধ ঘোষণা করা হয়। এ রায়ের ফলে মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পদে ফিরতে সব আইনি বাধা অপসারিত হয়।

জানা গেছে, মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বরখাস্ত করে ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীমকে রাসিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আদেশকে অবৈধ ঘোষণা করে দেয়া আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায় গত বছর ২২ সেপ্টেম্বর প্রকাশ করা হয়।

এরপর রায়ের অনুলিপি সংযুক্ত করে বুলবুল দায়িত্ব ফিরে পাওয়ার জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর আবেদন করেন। কিন্তু সরকার হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল দাখিল করে। কিন্তু ৫ মার্চ সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চের রায়ে বুলবুলের বরখাস্ত আদেশ চূড়ান্তভাবে অবৈধ ঘোষণা করা হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নাশকতার একাধিক মামলায় কারাগারে যাওয়ার পর ২০১৫ সালের ৭ মে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। রাসিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র হন নিযাম উল আযীম।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ১৫ জুন রাসিক নির্বাচনে বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এক লাখ ৩১ হাজার ৫৮ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। শপথ নেয়ার পর মাত্র ১৪ মাস দায়িত্বে ছিলেন বুলবুল।

সরকার বিরোধী আন্দোলনে পুলিশের দায়ের করা পুলিশ হত্যা, বিস্ফোরক ও নাশকতার অন্তত ১৭টি মামলার আসামি হয়ে দীর্ঘদিন কারাবন্দী ছিলেন তিনি। বর্তমানে বুলবুল বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ছাড়াও রাজশাহী নগর বিএনপির সভাপতি।






মন্তব্য চালু নেই