মেইন ম্যেনু

দামি চেয়ার না দেওয়ায় ভিসি যা করলেন!

মনপছন্দ চেয়ার পাননি বলে মাটিতে বসে অফিস করছেন ভারতের উত্তরাখন্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর।

রবিবার নবভারত টাইমস.কম জানায়, ভাইস চ্যান্সেলর (কূলপতি বা উপাচার্য) পীযুষ কান্ত দীক্ষিত তার বসার জন্য ৬০ হাজার রুপি (বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৭৭ হাজার টাকা) দামের কাঙ্খিত চেয়ারটি না পাওয়ায় রীতিমতো মাটিতে বসে অফিস করে যাচ্ছেন গত কয়েকদিন ধরে।

তার অফিসে গেলে দেখা যায়, মাটিতে পাতা গদি-ফরাসে বসে গ্রাম্য আড়তদার-ব্যবসায়ীর মতো দাপ্তরিক কাজ সারছেন তিনি। সামনে বসে আছেন দর্শনার্থী, ছাত্র ও শিক্ষকরা।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা গেছে, দীক্ষিত মহাশয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স (আর্থিক সংস্থান) বিভাগের কাছে দাবি জানিয়েছিলেন তাকে একটি ব্রান্ডেড চেয়ার দেওয়ার জন্য। ওই চেয়ারটির দাম ৬০ হাজার রুপি। আবেদনে তিনি লেখেন, পদের মর্যাদানুসারে একটি (ব্রান্ডেড) চেয়ার দরকার যাতে একই সঙ্গে আরামে বসা যায় এবং যা স্বাস্ব্যকরও বটে।

টাইম্স অব ইন্ডিয়াকে এ প্রসঙ্গে ভিসি পীযুষ বলেন, কেন এমন চেয়ার দরকার তা আমি ফাইলে স্পষ্টরূপে উল্লেখ করেছি। গত এক মাস ধরে চেয়ার না পাওয়ায় আমাকে বাড়ি থেকে আনা গদি পেতে মাটিতে বসতে হচ্ছে আর সেখানেই অফিস করছি।

তিনি আরও জানান, যতক্ষণ পর্যন্ত না মনমতো চেয়ার পাবেন ততক্ষণ পর্যন্ত তার এই ভূমি-আসন কর্মসূচি চলতে থাকবে।

তবে ফাইন্যান্সিয়াল কন্ট্রোলার তানজিম আলী এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক অবস্থা অত দামি চেয়ার কেনার মতো মজবুত নয়।






মন্তব্য চালু নেই