মেইন ম্যেনু

দক্ষিণে হাল ধরছেন কামরুল, উত্তরে রহমত!

ঈদের পর আন্দোলনের হুমকি দিয়ে রেখেছে সংসদের বাইরে থাকা বৃহত্তম রাজনৈতিক দল বিএনপি। আর সেই আন্দোলন রুখতে এবং প্রশাসনিক নির্ভরতা কমাতেই উদ্যোগী হয়ে উঠেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড। তারই প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে আগামী সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ঢাকা মহানগর কমিটি ঘোষণা করা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন আওয়ামী লীগের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র।

এদিকে মহানগর আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা জানিয়েছে, সেপ্টম্বরের প্রথম সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের আন্দোলন সংগ্রামের ভ্যানগার্ড হিসেবে পরিচিত ঢাকা মহানগর কমিটি। ঢাকা মহানগরকে উত্তর ও দক্ষিণ দুইভাগে ভাগ করে এ কমিটি গঠন করা হবে। তাদের কার্যক্রম দেখভাল করার জন্য গঠন করা হবে পর্যবেক্ষক কমিটি।

গত ২৮ জুলাই আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার বাসভবন গণভবনে দলটির এক কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মহানগর আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়াকে পর্যবেক্ষক কমিটির প্রধান করে দলের আরো কয়েকজন শীর্ষ নেতাকে এ কমিটিতে রাখা হচ্ছে।

এদিকে ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য একেএম রহমতউল্লাহকে সভাপতি আর মোহাম্মদপুর থান আওয়ামী লীগের সভাপতি সাদেক খানকে সাধারণ সম্পাদক করে ঢাকা মহানগর উত্তরের দায়িত্ব দেয়ার বিষয়ে আলোচনা চলছে। দক্ষিণে বর্তমান কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলামকে সভাপতি এবং সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদেকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হবে বলে দলের একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে।

উল্লেখ্য, বিএনপির আন্দোলনকে চাঙা করতে ঈদের আগেই তাদের ঢাকা মহানগরীর কমিটি ঘোষণা করেছে দলটি। ঢাকা থেকে সারাদেশে আন্দোলন ছড়িয়ে দিয়ে সরকার পতন করতে মির্জা আব্বাস এবং হাবিব উন নবী সোহেলের উপর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আর আব্বাস-সোহেলের অগ্নিপরীক্ষা প্রতিহত করতেই আওয়ামী লীগ শক্তিশালী নগর কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেয়।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের অন্তর্গত ৪৯টি থানার ১০৪টি ওয়ার্ড ও ১৭টি ইউনিয়ন কমিটি আছে। এর মধ্যে ডেমরা ও শ্যামপুর এ দু’টি থানার সম্মেলন বাকি আছে। বাকি ৪৭টি থানার সম্মেলন সম্পন্ন হয়েছে। এ মাসের মধ্যে এ বাকি দু’টি থানার সম্মেলনও শেষ করা হবে বলে জানায় দলের নির্ভরযোগ্য সূত্র।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের এক সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মহানগর কমিটি প্রসঙ্গে বলেন, ‘সেপ্টম্বরের প্রথম সপ্তাহে নগর আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষণা করা হবে। গত ২৮ জুলাই গণভবনে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের কার্যনিবাহী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।’

ঢাকা মহানগর কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ বলেন, ‘আমিও আপনার মতো শুনতেছি। কিন্তু কেন্দ্র থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো কিছু জানানো হয়নি।’

প্রসঙ্গত, ২০০৩ সালের ১৮ জুন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে ঢাকার সাবেক মেয়র প্রয়াত মোহাম্মদ হানিফকে সভাপতি ও মায়াকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। মোহাম্মদ হানিফের মৃত্যুর পর এমএ আজিজ ভারপাপ্ত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।






মন্তব্য চালু নেই