মেইন ম্যেনু

‘তিনি মন্ত্রী, তাই বলে লাইন ভাঙতে পারেন না’

‘তিনি মন্ত্রী, তাই বলে লাইন ভাঙতে পারেন না।’ ভোটারদের লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা এক তরুণ এমন ভাষায় শাসিয়ে দিলেন ভারতের এক সময়ের পর্দা কাঁপানো নায়ক চিরঞ্জীবীকে।

চিরঞ্জীবী শুধু নায়ক বা অভিনেতাই নন, তিনি ভারতের কেন্দ্রীয় পর্যটনমন্ত্রী। কিন্তু আইনের কাছে তাকে নতি স্বীকার করতে হলো। লাইন ভাঙার দায়ে দুঃখ প্রকাশ করে আবার পিছে ফিরে আগের জায়াগায় দাঁড়াতে হলো তাকে।

বুধবার সপরিবারে ভোট দিতে গিয়েছিলেন চিরঞ্জীবী। সিমান্ধ্র রাজ্যের হায়দরাবাদের একটি ভোটকেন্দ্রের ভোটার তারা। তিনি এ রাজ্যে কংগ্রেসের ক্যাম্পেইন কমিটির চেয়ারম্যানও।

উল্লেখ্য, বর্তমানে ভারতের জনপ্রিয় নায়ক রাম চরণের বাবা চিরঞ্জীব।

যাই হোক, লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করা ভোটাররা স্পষ্ট ভাষায় চিরঞ্জীবীকে লাইন ভাঙার জন্য দোষারোপ করলেন। তাদের ভাষ্য, সব ভোটারের অধিকার সমান। কারো বয়স যদি ৬৫ হয় বা কেউ যদি প্রতিবন্ধী হন, তাদের ক্ষেত্রে ভিন্ন কথা। কিন্তু অন্যদের জন্য আইন সমান।

পরে অবশ্য চিরঞ্জীবী দাবি করেন, ভোটার তালিকায় তার নাম আছে কিনা তা দেখার জন্যই তিনি ভোটকেন্দ্রে গিয়েছিলেন, ভোট দেওয়ার জন্য নয়।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।






মন্তব্য চালু নেই