মেইন ম্যেনু

মানববন্ধনে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম

‘তথাকথিত মানবাধিকারকর্মী ও বুদ্ধিজীবীরা বিএনপি-জামায়াতের সুরে কথা বলছে

‘তথাকথিত’ মানবাধিকারকর্মী ও বুদ্ধিজীবীরা আসলে কী চান তা জানতে চাইলেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

তিনি বলেছেন, ‘তথাকথিত মানবাধিকারকর্মী ও বুদ্ধিজীবীরা বিএনপি-জামায়াতের সাথে একই সুরে কথা বলছে। তারা কীভাবে তাদের পক্ষে কথা বলে তা আমার বোধগম্য নয়। আসলে তারা কী চায়?’

রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত ‘বিএনপি-জামাত স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের শত্রু, যুদ্ধাপরাধী-জঙ্গীবাদ জাতীর জন্য অভিশাপ’ শীর্ষক মানববন্ধনে তিনি এ প্রশ্ন তোলেন।

তিনি বলেন, ‘তালেবান-জঙ্গিবাদের সাথে বিএনপি-জামায়াতের কোনো পার্থক্য নেই। এরা সবাই একই সূত্রে একই মোহনায় মিলিত হয়ে দেশকে অন্ধকারে নিয়ে যাওয়ার ষড়যন্ত্র করছে। এই ষড়ষন্ত্রের বিরুদ্ধে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। যাতে দেশের মাটিতে তাদের কোনো ষড়যন্ত্র কার্য্কর না হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্বাধীনতার শত্রু ও একাত্তরের পরাজিত শক্তিকে উজ্জীবিত করতে পঁচাত্তর সালে এই বিএনপিই শেখ মজিবুর রহমানকে হত্যা করে।’

এসময় তিনি জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে দলীয় নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

মানববন্ধনে সংগঠনের মহানগর সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওসারের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন- সাংসদ পঙ্কজ দেবনাথ, মহানগর দক্ষিণ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এসএমএ মুরতাজা রাশেদ, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক ফরিদুর রহমান ইরান, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক মো.আরিফুর রহমান টিটু প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই