মেইন ম্যেনু

ডানা ছাড়াই একা একা উড়তে পারবে মানুষ

স্পাইডারম্যানের ছোড়া জালের মতোই দু’পাশে ছড়ানো দুটো পাখা। মাঝে বসার জায়গা। আর হ্যান্ডেল দু’‌টি দেখতে খানিকটা ভিডিও গেম খেলার কনসোলের মতো। তাতে রয়েছে নানা ধরনের সুইচ। এই যানের নীচে রয়েছে বেলুনের মতো দু’‌টি প্যাড। স্পাইডারম্যানের কোনও গাড়ি থাকলে বোধ হয় এ রকমই দেখতে হত।

খানিকটা মোটরবাইকের মতো দেখতে। তবে মাটিতে নয়, এটি উড়তে পারে খোলা আকাশে। আপনার সারাক্ষণের ব্যক্তিগত সঙ্গী। কোনও গল্পকথা নয়, এমন যান তৈরি করেছে আমেরিকার সিলিকন ভ্যালির সংস্থা ‘কিটি হক’। ‘ফ্লায়ার’ নামে ওই যানের প্রোটোটাইপ সম্প্রতি আকাশে ডানা মেলল।

সংস্থাটি জানিয়েছে, চলতি বছরের শেষেই এটি কিনতে পারবেন আমেরিকার মানুষজন। আপাতত অবশ্য ‘কিটি হক’-এর কাছে ১০০ ডলার জমা দিয়ে তিন বছরের জন্য সদস্যপদ নিতে পারেন তাঁরা। তারপর শুধু এর মালিকানা হাতে পাওয়ার অপেক্ষা। কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, গোটা প্রকল্পের পিছনে গুগলের সহপ্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজের নাকি হাত রয়েছে।

এবার জানা যাক কেমন সেই যান?

আটখানা মোটরে চলবে এই ‘ফ্লাইং মেশিন’। যা হেলিকপ্টারের মতোই সরাসরি জলে নামতে পারে। বলা ভাল, ভেসে থাকতে পারে জলে। ১০০ কিলোগ্রাম ওজনের ওই যান প্রতি ঘণ্টায় ২৫ মাইল বেগে মাটি থেকে ১৫ ফুট উচ্চতায় উড়তে পারে। ‘ফ্লায়ার’-এ চড়ে মার্কিন মুলুকের আকাশে উড়তে অবশ্য কোনও লাইসেন্স লাগবে না। বরং সংস্থার দাবি, মাত্র দু’ঘণ্টার চেষ্টাতেই এটি চালানোয় হাত পাকাতে পারবেন যে কেউ।

‘কিটি হক’–এর প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান থ্রান এর আগে গুগলের ভাইস প্রেসি়ডেন্ট ছিলেন। স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্সের অধ্যাপক সেবাস্তিয়ান জানিয়েছেন, প্রোটোটাইপের থেকে বেশ আলাদা ডিজাইনের হবে ‘ফ্লায়ার’। তবে এখনও পর্যন্ত এর জন্য কত খরচ পড়বে তা জানাননি তিনি। আজকাল।






মন্তব্য চালু নেই