মেইন ম্যেনু

ট্রাম্পের শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাকরণে ভুল, সমালোচনার ঝড়

যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতা হাতে নিয়েছেন দেশটির ৪৫তম প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নতুন প্রশাসনের কোন দায়িত্ব নিচ্ছেন, তা নিয়ে চলছে বেশ তোড়জোড়। গুরুত্বপূর্ণ পদে মনোনয়ন দেওয়া হচ্ছে ট্রাম্পের পছন্দের বিভিন্নজনকে।

এর মধ্যে একজন বেটসি ডেভোস। যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষামন্ত্রী পদের জন্য মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে তাঁকে।

যুক্তরাষ্ট্রের এই শিক্ষামন্ত্রী বোধ হয় নিজ শিক্ষার বিষয়ে অতটাও সচেতন নন। ট্রাম্পের অভিষেক অনুষ্ঠান উপলক্ষে দেওয়া এক বার্তায় বেশ কয়েক জায়গায় ব্যাকরণে ভুল করে বসলেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে একটি পোস্টে ওই বার্তাটি লেখেন তিনি।

ডেভোস লেখেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্টের অভিষেক ও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান দেখতে পেরে নিজেকে সম্মানিত বোধ করছি।’

বার্তাটিতে ছিল বেশ কয়েকটি ভুল। এক জায়গায় বড় হাতের অক্ষর ব্যবহার করেন তিনি। এ ছাড়া প্রেপজিশন ও বিশেষণের ভুলছিল ওই বার্তাটিতে। আর বেশ কিছু শব্দ ছিল পুরোপুরি অপ্রাসঙ্গিক।

বার্তাটিতে ডেভোস লেখেন, ‘হিস্টোরিক্যাল’ (ঐতিহাসিক)। কিন্তু ইংরেজি ব্যাকরণ অনুযায়ী সেটি হবে ‘হিস্টোরিক’। এ ছাড়া ‘ইনঅগুরেশন’ শব্দের প্রথম অক্ষরটি বড় হাতের লেখেন ডেভোস। পাশাপাশি এক জায়গায় ‘ফর’ লেখা হয়। যেখানে ব্যাকরণমতে ‘অব’ হবে।

বিষয়টি ঝড়ের বেগে ছড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। আলোচনা-সমালোচনার পাশাপাশি ডেভোসকে নিয়ে হাসি-ঠাট্টাও শুরু করেন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা। পরে অবশ্য পোস্টটি সরিয়ে নেন ডেভোস। আর ভুলগুলো সংশোধন করে নতুন একটি পোস্ট করেন তিনি।

ডেভোসের ওই পোস্টে মন্তব্য করেন অনেকেই।

ডেভিড ডুরান নামের একজন লেখেন, ‘যদিও আপনি ভুলগুলো সংশোধন করেছেন। তারপরও কিছু ব্যাকরণগত ভুল রয়ে গেছে। আমরা আমাদের সন্তানদের কী শেখাব?’

আইমি এফএফ নামের একজন মন্তব্য করেন, ‘আপনি মিশিগানে ফিরে যান। আমেরিকা আপনাকে চায় না।’

তবে ডেভোস বলেন, ভুলগুলো তিনি করেননি, করেছে তাঁর কর্মচারীরা। তিনি বলেন, ‘আমরা কর্মচারীরাও মানুষ।’






মন্তব্য চালু নেই