মেইন ম্যেনু

ট্রাম্পের টাকা দেবে না সিউল!

দক্ষিণ কোরিয়াকে থাড ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের খরচ এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার শোধ করা নিয়ে ট্রাম্পের দাবি নাকচ করেছে সিউল। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে ট্রাম্পের দাবি করা এক বিলিয়ন ডলার দেবে না সিউল। খবর এএফপির। উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য ঝুঁকি ঠেকানোর জন্য ‘টার্মিনাল হাই অ্যালটিচ্যুড এরিয়া ডিফেন্স’-টিএইচএএড সংক্ষেপে ‘থাড’ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা স্থাপন করা হয়েছিল।

মার্কিন এক সরকারী কর্মকর্তা এএফপিকে জানিয়েছিল থাড প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাটি ‘অল্প কয়েকদিনের মধ্যে’ কার্যকর হবে। রয়টার্সের সাথে একটি এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে ডোনাল্ড ট্রাম্প তাই দাবি করেছিলেন, ‘আমি দক্ষিণ কোরিয়াকে জানিয়েছি যে এর খরচ দেওয়া যুক্তিযুক্ত হবে। এটা একটি বিলিয়ন ডলার সিস্টেম। এটি অসাধারণ। একেবারে আকাশেই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা ঠেকিয়ে দেয়।’

খরচ দেওয়া সংক্রান্ত ট্রাম্পের দাবি নিয়ে সিউল থেকে বলা হয় চুক্তি অনুসারে থাড প্রতিরক্ষা সিস্টেমের সাইট ও অবকাঠামো খরচ দিবে দক্ষিণ কোরিয়া আর সেটা স্থাপন ও পরিচালনা করার খরচ দিবে যুক্তরাষ্ট্র। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া সে বিবৃতিতে বলা হয় ‘এই মৌলিক অবস্থানের কোন পরিবর্তন আসছে না।’

এদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্প রয়টার্সে দেওয়া সে সাক্ষাতকারে থাড ব্যবস্থার খরচ দাবি করেছিলেন। তিনি আরো বলেছিলেন, দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি তিনি পর্যালোচনা করবেন না হলে বাতিল করবেন।

১৯৫০-৫৩’র কোরীয় যুদ্ধের পর থেকেই নিরাপত্তা মৈত্রী চুক্তিতে আবদ্ধ আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ায় ২৮ হাজারেরও বেশি মার্কিন সেনা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই