মেইন ম্যেনু

ফেনসিডিলবাহী জাতীয় সংসদের স্টিকার সংযুক্ত প্রাইভেটকারসহ আ’লীগের দুই নেতা আটক

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ফেনসিডিলবাহী জাতীয় সংসদের স্টিকার লাগানো প্রাইভেটকারসহ যুবলীগ ও শ্রমিকলীগের দুই নেতাকে পুলিশ আটক করেছে। সোমবার রাত ১০টার দিকে কলারোয়া শেখ আমানুল্লাহ কলেজ এলাকা থেকে তারা আটক হয়। আাটককৃতরা হলো- কলারোয়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব শেখ আমজাদ হোসেন এবং শ্রমিকলীগে সাবেক সভাপতি, বর্তমান সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মজনুর রহমান। জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার এসআই হারাধন কুন্ডুর নেতৃত্বে পুলিশ কলারোয়া শেখ আমানুল্লাহ কলেজ এলাকায় যশোরগামী একটি সিলভার রং-এর প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো-গ-৩১-৭৯০৪) গতিরোধ করে। প্রাইভেটকারে সংসদ সদস্যের ব্যবহারের জন্য জাতীয় সংসদের স্টিকার সংযুক্ত ছিল। ওই গাড়ি তল্লাশি করে ১৪০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার হয়। গাড়িটি চালাচ্ছিলেন যুবলীগ আহবায়ক শেখ আমজাদ হোসেন। পাশে বসে ছিলেন শ্রমিকলীগ নেতা মজনুর রহমান। এসময় পুলিশ তাদেরকে আটক করে। আটক যুবলীগ আহবায়ক শেখ আমজাদ হোসেন পৌরসদরের কলারোয়া বাজারের মৃত আ.রশিদের পুত্র ও মজনুর রহমান ঝিকরা গ্রামের মৃত লুৎফর রহমানের পুত্র। এব্যাপারে কলারোয়া থানায় মামলা (নং-৫) হয়েছে বলে জানা গেছে। কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুন্সি মোফাজ্জেল হোসেন কনক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। এদিকে, গভীর রাত পর্যন্ত ফেনসিডিল উদ্ধার ও দুই নেতা আটকের বিষয় নিয়ে দেনদরবার চলতে থাকে। দৌড়ঝাপ শুরু করে প্রভাবশালীরা। তবে ধু¤্রজাল কাটিয়ে ভোরে তাদের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়। এঘটনায় কলারোয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। অনেক আ’লীগ নেতারা প্রকৃত দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবির পাশাপাশি দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারীদের থেকে সজাগ থাকার আহবান জানিয়েছেন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই