মেইন ম্যেনু

চৌগাছায় স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক সাময়িক বহিস্কার

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোরের চৌগাছা উপজেলায় এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগে ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখা¯ত করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকার অভিভাবক মহলসহ সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সূত্র জানায়, চৌগাছার কাঠগড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ইসমাইল হোসেনের (৪০) বিরুদ্ধে একই প্রতিষ্ঠানের নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করেছে। শিক্ষক ইসমাইল হোসেন পার্শ্ববর্তী মহেশপুর উপজেলার জুকা গ্রামের মেঘা মন্ডলের ছেলে। তিনি ২০১১ সালের ২ মে বিএসসি শিক্ষক হিসেবে কাঠগড়া বিদ্যালয়ে যোগদান করেন।

বিদ্যালয়ের পধান শিক্ষক তবিবর রহমান জানান, গত ২৮ মার্চ বিদ্যালয় ছুটির পর নবম শ্রেণির জনৈকা ছাত্রী সকল শিক্ষার্থীর মতই বাড়িতে যাওয়ার জন্য প্র¯তুতি নেয়। এ সময় শিক্ষক ইসমাইল হোসেন জরুরি কাজের কথা বলে তাকে বিদ্যালয়ে বসতে বলেন। সকল ছাত্র ছাত্রী এমনকি শিক্ষকগণ যার যার মত বাড়িতে চলে গেলে শিক্ষক ইসমাইল হোসেন ওই ছাত্রীকে অফিস কক্ষে ডাকেন। শিক্ষকের ডাকে ছাত্রী অফিস কক্ষে প্রবেশ করার সাথে সাথে তাকে জাপটে ধরে তার বিভিণœ স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন। মেয়েটি শিক্ষকের কবল থেকে বাঁচতে চিৎকার দিয়ে কান্নাকাটি শুরু করলে বিদ্যালয়ের আয়া সুখতারা দ্রুত অফিস কক্ষে ছুটে আসে। এ সময় তিনি অফিস কক্ষের দরজা অর্ধ বন্ধ অবস্থায় দেখেন। দরজা খুলতেই ওই ছাত্রীকে কান্নারত অবস্থায় দেখতে পায়। এরপর পরই বিদ্যালয়ের ঝাড়–দার কল্পনা রানীও সেখানে ছুটে আসেন এবং একই অবস্থা দেখতে পান। তারা শিক্ষকের কাছ থেকে ছাত্রীকে উদ্ধার করে তার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। যৌন হয়রানির শিকার ওই ছাত্রী বাড়িতে ফিরে তার অভিভাবকদের কাছে ঘটনাটি খুলে বলেন।

এ বিষয়ে ২৯ মার্চ স্কুল চলাকালীন মেয়েটির অভিভাবক বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে ঘটনাটি প্রধান শিক্ষককে জানান। পরদিন বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষকসহ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ এক জরুরি বৈঠকে বসে। এরই মধ্যে ঘটনাটি এলাকায় জানা জানি হলে ক্ষোভে ফেটে পড়েন অভিভাবকসহ সাধারণ মানুষ। পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে ঘোলাটে হচ্ছে এমন এক অবস্থায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবহিত করেন। তিনি বিষয়টি জানার পর অভিযুক্ত শিক্ষককে সাময়িক বহিস্কারের নির্দেশ দেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তবিবর রহমান আরো জানান ঘটনাটি দুঃখজনক।

তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে অভিযুক্ত হলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রতিষ্ঠান পরিচালনা পরিষদের সভাপতি আমিনুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা শিকার করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই