মেইন ম্যেনু

চুমুতে সারবে রোগ, দাবি গবেষকদের

সাম্প্রতি এক গবেষণায় উঠে এসেছে ‘কিসপেপটিন’ নামে এক হরমোনের নাম। গবেষকদের দাবি, প্রণয়-যুগলের ঠোঁট যখন মিলিত হয়। তখন এই হরমোনের ক্ষরণ হয় মানুষের শরীরে এবং শরীরের যৌন চাহিদা কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়। আর যদি এই যৌন সঙ্গম সফলতা লাভ করে তাহলে ‘হ্যাপি হরমোনে’র ক্ষরণ হয়। শরীরের সুখানুভূতি মনকেও শান্তি প্রদান করে।

গবেষকদের মতে, অবশ্য চুম্বন সবসময় যৌনতার চরম পর্যায়ে পৌঁছে দেয় না । এমন অনেক প্রেমিক-প্রেমিকা রয়েছেন, যারা শুধুমাত্র চুম্বনেই আটকে থাকেন, শারীরিক সম্পর্ক আর বেশি বাড়ান না। গবেষকদের দাবি, কিসপেপটিন হরমোনের মাধ্যমে উপকৃত হন তারাও। কারণ এই হরমোনের অনেক রোগ নিরাময়ের ক্ষমতা রয়েছে। এর ফলে শরীরের প্রজনন ক্ষমতাও বেড়ে যেতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই