মেইন ম্যেনু

গোল যখন গোল নয়—নেইমারের ‘হা হা হা’

রিয়াল বেটিসের বিপক্ষে বার্সেলোনা ২-১ গোলে জিততে পারত! কিন্তু শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের। নেইমার এর দায় চাপিয়েছেন রেফারির কাঁধে।

কোনো সংবাদমাধ্যমে নয়, নেইমার তাঁর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে। রেফারির একটি গোল আর একটি পেনাল্টি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে রীতিমতো কৌতুকই করেছেন বার্সার ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।

কাল বেটিসের মাঠে ৭৫ মিনিটে পিছিয়ে পড়া বার্সাকে ড্র এনে দেয় শেষ মুহূর্তে করা লুইস সুয়ারেজের গোল। কিন্তু সবকিছু ছাপিয়ে এই ম্যাচে আলোচনার সবচেয়ে বড় বিষয় হয়ে উঠেছে দ্বিতীয়ার্ধে দেওয়া রেফারির একটি সিদ্ধান্ত। জর্ডি আলবার হেড বেটিসের গোললাইন অতিক্রম করেছিল।

কিন্তু বাতাসে থাকা বল গোললাইনের ওপাশ থেকে বিপদমুক্ত করেন বেটিসের এক খেলোয়াড়। বার্সেলোনার খেলোয়াড় এটিকে গোল দাবি করেছিলেন। টিভি রিপ্লেতেও দেখা যায় বলটি গোললাইন অতিক্রম করেছিল। কিন্তু পর্যাপ্ত প্রযুক্তি না থাকায় রেফারি সাহায্য নিতে পারেননি। রেফারি রায় দেন, এটি গোল নয়।

এই গোলটির ঠিক আগমুহূর্তে নেইমারকে বক্সে ফেলে দেওয়া হয়েছিল। নেইমার পেনাল্টি দাবি করেন, যে দাবি নাকচ করে দেন রেফারি। একযাত্রায় দুবার নিজেদের বঞ্চিত হিসেবে আবিষ্কার করেছে বার্সা।

ইনস্টাগ্রামে নেইমার সেই মুহূর্তের একটি ছবি দেন। আর ছবির ওপরে শুধু লেখেন—হাহাহাহাহাহা! বার্সেলোনা সেই পেনাল্টি দাবির মুহূর্তটির ছবি দিয়ে আবারও লিখেছেন—‘হা হা হা হা হা। পেনাল্টি হতে পারত এটা!’

বার্সেলোনা দারুণভাবে লড়াইয়ে ফিরে এসেও কালকের ড্রয়ে আবার অনেক পিছিয়ে পড়ল। রিয়াল চার পয়েন্টে এগিয়ে, তবে এক ম্যাচ কমও খেলেছে। কাল রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে তাই তুমুল আলোচনা চলছে। এমনকি মাদ্রিদভিত্তিক পত্রিকা মার্কাও এ নিয়ে মন্তব্য করেছে, রেফারির ভুলই সর্বনাশ করেছে বার্সার।-প্রথম আলো



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই