মেইন ম্যেনু

গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে দেরি করবেন না ট্রাম্প

শপথ নেয়ার পর বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত ঘোষণা করতে দেরি করবেন না যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুক্রবার হোয়াইট হাউজে দায়িত্ব নেয়ার পরপর তিনি অভিবাসননীতি কঠোর করা, যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ এবং বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নীতিগুলোর রাশ টেনে ধরার কাজ শুরু করবেন।

ট্রাম্পের সহযোগীদের বরাত দিয়ে শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

গত নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হন ধনকুবের ট্রাম্প। শুক্রবার ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে তিনি শপথ নিতে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে স্ত্রী মেলানিয়াকে নিয়ে তিনি ওয়াশিংটন ডিসিতে পৌঁছেছেন।

ট্রাম্পের সহযোগীরা জানিয়েছেন, শপথ নেয়ার পর ব্যাপক ক্ষমতার প্রেসিডেন্সিয়াল কলমটি ব্যবহার করতে দেরি করবেন না ট্রাম্প। কংগ্রেসের অনুমোদন ছাড়াই বাস্তবায়ন করা যায় এমন কিছু নির্বাহী আদেশে তিনি স্বাক্ষর করবেন ।

বৃহস্পতিবার ট্রাম্পের মুখপাত্র শন স্পাইসার সাংবাদিকদের বলেছেন,‘শুধু প্রথম দিনই না, দ্বিতীয়, তৃতীয় দিনেও সত্যিকার পরিবর্তনের বিষয়গুলো শুরু করতে তিনি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং আমার ধারণা আগামী কয়েকদিন ও কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আপনারা এগুলো দেখতে পাবেন।’

শনিবার ভার্জিনিয়ার ল্যাঙলিতে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআই ‘র সদর দপ্তর পরিদর্শনে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ট্রাম্পের। সম্প্রতি এই গোয়েন্দা সংস্থাটি ও এর বিদায়ী প্রধানের কঠোর সমালোচনা করেছেন ট্রাম্প। সিআইএ দাবি করেছিল,যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা চলার সময় রাশিয়া সাইবার হামলা চালিয়েছে। প্রথমে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তুললেও পরে তা মেনে নেন ট্রাম্প। শুধু তাই নয়, মার্কিন এ গোয়েন্দা সংস্থাটিকে তিনি নাৎসি জার্মানির সঙ্গেও তুলনা করেছেন।

ট্রাম্পের উপদেষ্টারা স্বাস্থ্যসেবা, জলবায়ু নীতি, অভিবাসন, জ্বালানি ও অন্যান্য বহু বিষয়ে দুইশরও বেশি সম্ভাব্য নির্বাহী আদেশ তার বিবেচনার জন্য প্রস্তুত করে রেখেছেন। তবে এর মধ্যে কতোগুলো আদেশ তিনি প্রাথমিকভাবে অনুমোদন দেবেন তা পরিষ্কার নয়।






মন্তব্য চালু নেই