মেইন ম্যেনু

গায়ের রং ফর্সা দেখানোর অ্যাপস নিয়ে বিতর্ক

গায়ের রং অপেক্ষাকৃত ফর্সা দেখাতে ফিল্টারযুক্ত একটি অ্যাপসকে বর্ণবাদী বলে উল্লেখ করে বেশ সমালোচনা হচ্ছে। এ নিয়ে অবশ্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন অ্যাপসটির নির্মাতারা। খবর বিবিসির।

ফেসঅ্যাপ নামের একটি অ্যাপস দিয়ে কেউ তার ছবি তুলে তাতে নানা রকম পরিবর্তন করতে পারে। এমনকি চোখে চশমা থাকলে তাও ছবি থেকে বাদ দেয়া যায়। এছাড়া যে কেউ চাইলেই নিজের বয়স কম বা বেশি দেখাতে পারেন। এতে করে নিজের ছবি আরো আকর্ষণীয় ভাবে উপস্থাপন করা যায়।

এমনকি ছেলেকে মেয়ে বা মেয়েকে ছেলেতেও পরিণত করা যায় ওই অ্যাপসের মাধ্যমে। এসব পরিবর্তন নিয়ে খুব একটা সমস্যা ছিল না। বরং সবাই বেশ উপভোগ করছিল অ্যাপসটি। কিন্তু এতে যখন মুখের ত্বকের রং আরো ফর্সা বা উজ্জ্বল করার অপশনটি যুক্ত করা হলো তা নিয়েই শুরু হলো বিতর্ক।

অনেক ব্যবহারকারী বলছেন, এতে তাদের গায়ের রং আরো ফর্সা দেখাচ্ছে। এতটাই যে তাদের অনেক বন্ধুকে চেনাই যাচ্ছে না।

বর্ণবাদী অ্যাপস বলে ওই অ্যাপসটির সমালোচনা করায় কোম্পানিটির প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও ইয়ারোস্লাভ গনচারভ দুঃখপ্রকাশ করে বলেছেন, ‘এটা আসলে ইচ্ছাকৃত নয়, অ্যাপটি যেভাবে তৈরি হয়েছে তার পদ্ধতির মধ্যেই এই সমস্যা রয়েছে। আমরা অ্যাপসটি ঠিক করছি। আশা করছি এ ধরনের সমস্যা ভবিষ্যতে হবে না।’

এর আগেও বিভিন্ন অ্যাপসের বিরুদ্ধে এ ধরণের অভিযোগ উঠেছে। স্ন্যাপচ্যাটের একটি ফেস ফিল্টার নিয়ে আপত্তি উঠেছিল যে, এতে পূর্ব এশিয়ানদের চেহারায় ‘বর্ণবাদী ক্যারিকেচার’ করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই