মেইন ম্যেনু

ক্ষুদ্রঋণ মানেই দারিদ্র্য বিমোচন নয় : অর্থমন্ত্রী

দারিদ্র্য দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করলেও ক্ষুদ্রঋণ মানেই দারিদ্র্য বিমোচন নয় বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে উন্নয়ন সংস্থা পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) ২৫ বছরে পদার্পণ এবং বর্ষব্যাপী রজতজয়ন্তী উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
মুহিত বলেন, ‘১৯৮৬ সালে যখন দেশে ক্ষুদ্রঋণের কার্যক্রম শুরু হয় তখন তা মোট ঋণপ্রবাহে ৪ শতাংশ অবদান রাখতো। বর্তমানে এটি ৩৩ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। ক্ষুদ্রঋণের এ বিস্তার প্রশংসার দাবি রাখে।’
পিকেএসএফ-এর সভাপতি কাজী খলীকুজ্জামান আহমেদ বলেন, ‘শুধু ঋণ দিয়ে দারিদ্র্য বিমোচন সম্ভব নয়। দারিদ্র্য বিমোচনের জন্য কর্মসংস্থান তৈরির কোনো বিকল্প নেই। উন্নয়ন এবং দারিদ্র্য বিমোচন একটি রাজনৈতিক প্রক্রিয়া। এজন্য সঠিকভাবে কাজ করতে হবে।’
২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশের চেয়ে মধ্যম জীবনমানের দেশে পরিণত করা বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন তিনি।
কাজী খলীকুজ্জামান বলেন, ‘এর মধ্য দিয়ে দেশে একটা স্থিতিশীলতা আসবে। অর্থনীতি একটা কাঠামোর মধ্যে দাঁড়াতে পারবে।’
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান।
উল্লেখ্য, দারিদ্র্য দূরীকরণ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে ১৯৯০ সালে যাত্রা শুরু করে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন।






মন্তব্য চালু নেই