মেইন ম্যেনু

মানুষ মানুষের জন্য

কুড়িগ্রামে হাঁটুতে মারাত্মক সমস্যার কারণে পঙ্গুত্বের পথে এক মুক্তিযোদ্ধা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামে হাঁটুতে মারাত্মক সমস্যার কারণে পঙ্গুত্বের পথে এক মুক্তিযোদ্ধা। পারিবারিকভাবে খরচ মেটাতে না পেরে অসহায় এই পরিবার সবার সাহায্যের আশায় পথে পথে ঘুরছেন। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অর্থোপেডিক্স সার্জারী বিভাগে কর্মরত ডা. এমএম হক মাহফিল রোগীকে দ্রুত অপারেশনের জন্য ঢাকাস্থ পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছেন। অপারেশন খরচ বাবদ প্রায় ৫ (পাঁচ) লক্ষ টাকার প্রয়োজন। যা এই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য সংকুলান করা কষ্টকর।

কুড়িগ্রাম শহরের ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন সবুজ পাড়াস্থ মৃত: কাইয়ুম উদ্দিনের পূত্র বীরমুক্তিযোদ্ধা এ.কে.এম শামিমুল হক মিন্টু (৭০)। যুদ্ধ করেছেন ৬ নং সেক্টরে। মুক্তিযোদ্ধা গেজেট নং- ৭৭, মুক্তিযোদ্ধা সনদ নং- ম ১৫১৭৮০, মুক্তিবার্তা নং- ০৩১৬০১০৩৮৯। ১৯৭১ সালে মাতৃভূমিকে হানাদার বাহিনীর আক্রমন থেকে মুক্ত করতে জীবন বাজি নিয়ে যুদ্ধ করেছেন। আজ দু’পা হারানোর পথে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আবেদন করেও কোন সাড়া পাননি। ফলে শেষ জীবনে পঙ্গুত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে দাঁড়স্ত হয়েছেন সকলের কাছে। যাতে বিবেকবান বৃত্তবানরা এগিয়ে আসেন। এজন্য কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক খান মোঃ নুরুল আমিন কর্তৃক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মূখ্য সচিবসহ বিভিন্ন জায়গায় দরখাস্ত করেও হতাশ এই পরিবারটি। তাই সকলের কাছে সহযোগিতা কামনা করছেন।

আহত মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী নুরন্নাহার হক নুরী জানান, ১৯৭১ সালে শিলিগুড়িতে মুক্তিযোদ্ধাদের ট্রেনিং-এ ক্রলিং করার সময় তিনি হাঁটুতে প্রচন্ড ব্যাথা পান। সে ব্যাথা মাঝে মাঝে উঠলেও এখন মধ্য বয়সে এসে ভয়ংকর রুপ আকার ধারণ করেছে। ব্যাথার কারণে তিনি নড়াচড়া করতে পারেন না। তার চিৎকারে বাড়ীর সকলের কষ্ট হচ্ছে। আপনারা একটু সহযোগিতার হাত বাড়ান।

তাকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা ঃ এ.কে.এম শামিমুল হক মিন্টু, পিতা- মৃত: কাইয়ুম উদ্দিন, গ্রাম- সবুজ পাড়া, থানা ও জেলা- কুড়িগ্রাম, মোবাইল- ০১৯৪২০৫০৩৯৫। সঞ্চয়ী হিসাব নং- ৯৪৫৬, রুপালী ব্যাংক, কুড়িগ্রাম শাখা।






মন্তব্য চালু নেই