মেইন ম্যেনু

কিডনি দিলেন স্ত্রী, তবু স্বামীকে নিয়ে শঙ্কা

স্বামীকে বাঁচানোর জন্য দিয়েছেন নিজের একটি কিডনি। দীর্ঘদিন ধরে করে যাচ্ছেন স্বামীর সেবা। এরপরও মাত্র দেড় লাখ টাকার জন্য সেই স্বামীকে বাঁচাতে পারবেন কি না, সেই শঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন ৪ কন্যাসন্তানের জননী বিলকিছ বেগম (৩৭)। সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের ঘাসিগাঁও গ্রামের আতিকুর রহমানের (৪৭) স্ত্রী তিনি।

আতিকুর রহমান একসময় সৌদিপ্রবাসী ছিলেন। ভাগ্যের নির্মমতায় আজ তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি।

আতিকুর রহমানের দুটো কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। স্বামীকে বাঁচাতে নিজের একটি কিডনি দিয়েছেন বিলকিছ বেগম। কিন্তু ভাগ্যের পরিহাসে বিলকিছের দেওয়া কিডনি আতিকুর রহমানের শরীরে প্রতিস্থাপন করার পর দেখা দেয় ভাইরাসজনিত সমস্যা। আতিকের চিকিৎসায় ইতিমধ্যেই ব্যয় হয়েছে প্রায় ১২ লাখ টাকা। নিজেদের সঞ্চয়, আত্মীয়স্বজনদের কাছ থেকে পাওয়া সাহায্য দিয়ে এত দিন চিকিৎসা চলেছে আতিকের।

কিন্তু প্রতিস্থাপিত কিডনিতে ভাইরাসজনিত সমস্যা দেখা দেওয়ায় চিকিৎসার জন্য এখন দেড় লাখ টাকা প্রয়োজন। বর্তমানে ভিটে ছাড়া আর কোনো সম্বল না থাকায় চোখে অন্ধকার দেখছেন আতিকুর রহমান ও তার পরিবার।

বাধ্য হয়ে হৃদয়বানদের প্রতি হাত বাড়িয়েছেন আতিকুর রহমান। চাইছেন সহযোগিতা।

আতিকুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগের নম্বর-০১৭৮৫৯১৬১৫৫। তাকে সাহায্য পাঠানো যাবে এই ব্যাংক অ্যাকাউন্টে- অ্যাকাউন্ট নম্বর ২৮৮০, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, খাজাঞ্চী রেলস্টেশন শাখা, বিশ্বনাথ, সিলেট।






মন্তব্য চালু নেই