মেইন ম্যেনু

কাশ্মীরে তুষারপাতে চাপা পড়া এক গর্ভবতী নারীর বেঁচে যাওয়ার গল্প

লাগাতার তুষারপাতে ক্ষতিগ্রস্ত ভূস্বর্গের (কাশ্মীর) জনজীবন। পুরু বরফে চাপা পড়ে গিয়েছে ঘর-বাড়ি। আর এতেই বাড়ির ভেতর আটকে পড়েছিলেন কাশ্মীরের এক গর্ভবতী নারী। প্রায় ৪ কিলোমিটার এলাকার বরফ কেটে তাকে উদ্ধার করল কাশ্মীর পুলিশ।

শনিবার পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, তুষারধসের ফলে তীব্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অনন্তনাগ জেলার তিনটি স্কুল এবং আটটি বিল্ডিং। সেই জেলারই দুই অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ। অনন্তনাগ থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে আরু গ্রামে নিজের বাড়িতে আটকে পড়েছিলেন দিলশাদ। খবর পেতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌঁছায় পুলিশ।

অন্তঃসত্ত্বা ওই নারীকে নিরাপদে বের করে আনার জন্য পহলগাঁও থেকে আরু পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার রাস্তার বরফ সাফ করে পুলিশ। তারপর প্রায় ৮ কিলোমিটার পথ হেঁটে অতিক্রম করে অন্তঃসত্ত্বার পরিবারকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়। একই ঘটনা ঘটে ককারনাগের পাঞ্জগাঁও গ্রামের অন্তঃসত্ত্বা মাসুদা জানের সঙ্গেও। হাসপাতালে যাওয়ার পথেই তুষারধসে আটকে পড়েছিলেন তিনি। পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পৌঁছে দেয়।

পুলিশ সূত্রে খবর, অনন্তনাগের পাশাপাশি তুষারধসে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কুলগাঁও, বুদগাঁও, বারামুলা, কুপওয়ারা জেলার বেশ কয়েকটি গ্রামও। বন্ধ হয়ে গিয়েছে স্কুল।






মন্তব্য চালু নেই