মেইন ম্যেনু

না.গঞ্জের ৭ খুন

কথায় কথায় রিট কাজে বাধা সৃষ্টি করছে : প্রধানমন্ত্রী

নারায়ণগঞ্জের ৭ খুনের ঘটনায় হাইকোর্টের রিট নিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অনেকের অতিউৎসাহী কর্মকাণ্ডে নির্বাহী বিভাগের কাজে অসুবিধা হচ্ছে। কথায় কথায় রিট, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাজে বাধা সৃষ্টি করছে।

বুধবার সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে শেখ হাসিনা এ কথা বলেন।

হাসিনা বলেন, ‘যে কাজ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী ও নির্বাহী বিভাগের, সেখানে যদি সব কাজ জুডিশিয়ারি করতে হয়, তাহলে আমাদের কী করণীয় থাকে? মনে হয় আমাদের হাত-পা বেঁধে ফেলে দিচ্ছে। অতি উৎসাহী কর্মকাণ্ড একদিকে যেমন অপরাধীদের সজাগ করে দিচ্ছে, অন্যদিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাজে বাধা সৃষ্টি করছে।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাহী বিভাগের দায়িত্ব নির্বাহী বিভাগ পালন করবে। কেউ অতি উৎসাহী হয়ে কাজ করলে অসুবিধা হয়। জুডিশিয়াল, লেজিসলেটিভ ও পার্লামেন্ট কেউ যেন একে অপরের কাজে বাধা সৃষ্টি না করে।’

প্রসঙ্গত, গত রোববার এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে নারায়ণগঞ্জে সাত খুনে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে চাকরিচ্যুত র‌্যাব-১১ এর সাবেক কমান্ডারসহ তিন কমকর্তাকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

নারায়ণগঞ্জের ৭ খুনের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলামসহ সাত খুনের ঘটনায় যারা জড়িত, তারা যার আত্মীয়ই হোক না কেন, কেউ রেহাই পাবে না। সবাইকে বিচারের আওতায় আনা হবে। জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে খালদা জিয়া র‌্যাব দিয়ে মানুষ হত্যা করে তাদের রেহাই দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখন তিনি (খালেদা জিয়া) র‌্যাবের বিলুপ্তির কথা বলছেন। নির্বাচনের আগে ও পরে বিএনপি-জামায়াত সারাদেশে যে সহিংসতা চালিয়েছে তা দেশের মানুষ কখনোই ভুলবে না। তাদের সহিংসতা থেকে কেউ রক্ষা পায়নি।’

এর আগে সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামসহ কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা।






মন্তব্য চালু নেই