মেইন ম্যেনু

কত টাকায় নাশতা করেন ওয়ারেন বাফেট?

একদিনে সকালে নাশতায় কত টাকা খরচ করেন বিশ্বের তৃতীয় ধনী ওয়ারেন বাফেট? কী মনে হচ্ছে? অনেক টাকা, না? হয়তো এমটা হলেও অস্বাভাবিক কিছু হতো না। কিন্তু অনেকে ধারণাই করতে পারবেন না, সকালের নাশতার জন্য কত অল্প টাকা খরচ করেন তিনি।

ওয়ারেন বাফেটের একবারের নাশতার ব্যয় সম্পর্কে জানার আগে জেনে রাখা ভালো তার মোট সম্পদের পরিমাণ কত। ৭ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের মালিক বাফেট। যদি এক ডলার সমান ৮০ টাকা ধরে নেওয়া হয়, তাহলে টাকার অঙ্কে তার সম্পদের পরিমাণ দাঁড়ায় ৫৯ লাখ ২ হাজার কোটি টাকা।

এবার জেনে নেওয়া যাক, এত টাকার মালিক হয়েও কতটা সাদামাটা জীবন যাপন করেন বাফেট। বাফেট প্রতিদিন সকালের নাশতায় সর্বোচ্চ ২৫০ টাকার মতো খরচ করেন। যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশে মাত্র ২৫০ টাকায় বাফেটের মতো একজন ধনকুবের নাশতা করেন, ভাবা যায় কি! যে যাই ভাবুন না কেন, এটিই সত্য।

এইচবিও চ্যানেল বাফেটকে নিয়ে ‘বিকামিং ওয়ারেন বাফেট’ নামে একটি প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করেছে। সোমবার প্রচারিত হয় সেটি। এতে বাফেট নিজে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বাফেট বলেন, ‘সকালে আমি যখন শেভ করি, তখন আমার স্ত্রীকে বলি, হয় ২ দশমিক ৬১, ২ দশমিক ৯৫ অথবা ৩ দশমিক ১৭ ডলার দাও আমাকে। তখন সে ছোট এক কাপে যেকোনো পরিমাণ ডলার আমার গাড়িতে রাখে।’

বাফেটের এই অভ্যাস এক দুই বছরের নয়, টানা ৫৪ বছর ধরে তিনি এমনটি করে আসছেন। সকালে পাঁচ মিনিট নিজে গাড়িয়ে চালিয়ে অফিসে যান। যাওয়ার পথে ম্যাকডোনাল্ড শপ থেকে নির্ধারিত ওই অর্থের যেকোনো পরিমাণের ডলার দিয়ে নাশতা করেন তিনি।

বাফেট বলেন, ‘যেদিন নিজেকে খুব সাফল্যমণ্ডিত মনে না হয়, সেদিন আমি কম দাম (২ দশমিক ৬১ ডলার) দিয়ে নাশতা কিনে নেই। এ দামে সস দেওয়া দুটি প্যাটিস ও এক ক্যান কোক খেয়ে নেই।’

৮৬ বছরের বাফেট ১৯৫৮ সালে ৩১ হাজার ৫০০ ডলার দিয়ে একটি বাড়ি কেনেন। সেই থেকে এ পর্যন্ত তার সম্পদ বেড়েছে কয়েক গুণ, কিন্তু আজও সেই বাড়িতে থাকেন তিনি। ব্যক্তিগত গাড়ি চালানোর জন্য কোনো চালকও নেই তার, নিজেই ড্রাইভ করেন।






মন্তব্য চালু নেই