মেইন ম্যেনু

এ সরকারে ‘সিগারেট মন্ত্রী’ও আছেন: এরশাদ

সমাজকল্যাণমন্ত্রী মহসিন আলীর সমালোচনা করে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এইচ এম এরশাদ বলেন, ‘সরকারের একজন মন্ত্রী আছেন, তাঁর নাম সিগারেট মন্ত্রী। তিনি স্টেজে বসে সিগারেট খান। সে মন্ত্রী যে কী বলেন, শুনে লজ্জা করে। আমি একজন এমপি হয়েও সে মন্ত্রীর কথা বলতে লজ্জা করে। সে যে কেন সরকারে আছে জানি না।’

এসময় তিনি বলেন, ‘মন্ত্রীরা সবাই শুধু কথাই বলেন, কাজ কিছু নাই।’

বুধবার বিকেলে রাজধানীর কাকরাইলে জাপার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলীয় এক সমাবেশে এরশাদ এসব কথা বলেন। জাপার ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কমিটির নবনিযুক্ত আহ্বায়ক সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা ও সদস্যসচিব জহিরুল আলমকে সংবর্ধনা দিতে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

এরশাদ বলেন, বাংলাদেশে আজ ঘুষের রাজ্য স্থাপন হয়েছে। গুম, খুন, ঘুষ, দুর্নীতি মহামারি রূপ নিয়েছে। ‘হাওয়া ভবন’ আজ সরকারের সর্বত্র। একজন পুলিশ কনস্টেবলের চাকরি নিতে পাঁচ লাখ টাকা ঘুষ লাগে। স্কুলের শিক্ষক হতে আট লাখ টাকা লাগে। সরকার ঘুমিয়ে আছে। তাদের কোনো চিন্তা নাই। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘ইতিহাসে বাঁচতে চাইলে ঘুষ-দুর্নীতি বন্ধ করুন।’

সমাবেশে জাতীয় পার্টির অনেক সাংসদ উপস্থিত হননি। এর উল্লেখ করে এরশাদ বলেন, ‘জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্র আমাকে সর্বময় ক্ষমতা দিয়েছে। তাই যেসব এমপি ভাইয়েরা সভায় আসেননি, তাদের বলব গঠনতন্ত্রটা পড়ুন। আগামীতে নির্বাচন করতে হলে আমার সিগনেচার লাগবে। আমি ছাড়া পৃথিবীর কেউ নমিনেশন দিতে পারবে না। অতএব অন্য কেউ নমিনেশন দেবে ভাবলে তা ভুলে যান। আমার পাশে দাঁড়ান।’






মন্তব্য চালু নেই