মেইন ম্যেনু

এই ৯টি দেশ বিশ্বে সবচেয়ে ‘অস্বচ্ছ’ ও ‘রহস্যময়’,

বর্তমান মুক্ত গণতন্ত্রের যুগে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং তথ্য পাওয়ার নিশ্চয়তা সর্বজন স্বীকৃত। তবে রিস্ক অ্যাডভাইজরি গ্রুপের এক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকারের মধ্যে এসব বিষয়গুলো মানা হয় না। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্টের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এ পরামর্শন প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বের দেশের ‘অস্বচ্ছ’ ও ‘রহস্যময়’ নয়টি দেশের তালিকা প্রকাশ করেছে। মূলত সরকারের অস্বচ্ছতার ওপর ভিত্তি করে এ তালিকা করা হয়েছে। বিশেষ করে দেশগুলোতে সরকারি তথ্য প্রাপ্তি, তথ্যের মান এবং নতুন তথ্য পাওয়া দেশটির সাধারণ জনগণের জন্য কতটুকু সহজ তা বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী বিশ্বের শীর্ষ ৯টি ‘অস্বচ্ছ’ ও ‘রহস্যময়’ দেশ হলো:-

উত্তর কোরিয়া
১. উত্তর কোরিয়া: পৃথিবীর সবচেয়ে অস্বচ্ছ ও রহস্যময়ী রাষ্ট্রের তালিকার শীর্ষে রয়েছে গণতান্ত্রিরক গণ প্রজাতন্ত্রী উত্তর কোরিয়া। গোপনীয় ও স্বৈরতন্ত্রের এ দেশটি সর্বোচ্চ ৩৪ পয়েন্ট পেয়ে রিস্ক অ্যাডভাইসরি গ্রুপের তৈরি করা ওই প্রতিবেদনের শীর্ষে অবস্থান করছে।

তুর্কমেনিস্তান
২. তুর্কমেনিস্তান: ১৯৭৫ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত মোট ৩১ বছর তুর্কমেনিস্তান শাসন করেছেন দেশটির প্রসিডেন্ট সাপুরমুরাত নিয়াজভ। তবে তার মৃত্যুর পর দেশটি আর উন্মুক্ত করা হয়নি। তাই অস্বচ্ছতার বিচারে দেশটি ৩৩ পয়েন্ট পেয়ে দ্বিতীয় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার্স এর তথ্য অনুসারে, তুর্কমেনিস্তান বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ মুক্ত গণমাধ্যম তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে।

লাওস
৩. লাওস: লাওস দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মার্কসবাদী সমাজতান্ত্রিক দেশ। বিশ্বের মধ্যে দেশটির মাথাপিছু জিডিপি সর্বনিম্ন। অস্বচ্ছ দেশগুলোর তালিকায় ৩০ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন।

গণপ্রজাতন্ত্রী কিউবা
৪. কিউবা প্রজাতন্ত্র: সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের পরও কিউরা সরকারের অস্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। ২৯ পয়েন্ট পেয়ে দেশটি অস্বচ্ছ ও রহস্যময় দেশের তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে।

লিবিয়া
৫. লিবিয়া: উত্তর অফ্রিকার দেশ লিবিয়া। ২০১১ সালে তৎকালীন এক নায়ক শাসক মুয়াম্মার আল গাদ্দাফির মৃত্যুর পর বর্তমানে দেশটিতে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিরাজ করছে। দেশটি ২৮ পয়েন্ট পেয়ে পঞ্চম অস্বচ্ছ দেশ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছ।

দক্ষিণ সুদান
৬. দক্ষিণ সুদান: ২০১১ সালে সুদানের কাছ থেকে স্বাধীনতা পায় দেশটি। এরপর ২০১৩ সাল পর্যন্ত দেশটিতে গৃহযুদ্ধ চলে। এ তালিকায় দেশটি ২৭ পয়েন্ট পেয়েছে।

ভুটান
৭. ভুটান: ভুটানের রাজাকে থান্ডার ড্রাগন কিং নামে ডাকা হয়। তবে বর্তমানে রাজনৈতিক সংস্কারের পরও অস্বচ্ছ দেশের তালিকায় স্থান হয়েছে হিমালয়ের এ দেশটির। দেশটির পয়েন্ট ২৬।

গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র
৮. গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র: মধ্য আফ্রিকার এ দেশটিতে সব সময় গৃহযুদ্ধ লেগে থাকে। অস্বচ্ছ দেশের তালিকায় ২৪ পয়েন্ট পেয়েছে দেশটি।

আলেকজান্ডার লুকাসেনকোকে
৯. বেলারুশ: বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার লুকাসেনকোকে ইউরোপের শেষ স্বৈরশাসক বলা হয়। ২২ পয়েন্ট পেয়ে অস্বচ্ছ ও রহস্যময় দেশের তালিকায় অবস্থান করছে দেশটি। -বাংলা ট্রি্বিউন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই