মেইন ম্যেনু

এইচএসসিতে গড় পাসের হার ৭৮.৩৩, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭০ হ‍াজার

শেখ মোঃ আলকামুন, স্টাফ রিপোর্টার, আওয়ার নিউজবিডিঃ উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। এ বছর গড় পাসের হার ৭৮.৩৩ শতাংশ।

সারাদেশে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭০ হাজার ৬০২ জন।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৮৪.৫৪ শতাংশ, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭৮.৫৫ শতাংশ, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭০. ১৪ শতাংশ, সিলেট শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭৯.১৬ শতাংশ, বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭১.৭৫ শতাংশ।

এ বছর কলেজগুলোতে পাসের হার ৭৫.৭৪ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৭ হাজার ৭৮৯ জন।

মাদ্রাসা বোর্ডে পাসের হার ৯৪.০৮ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ হাজার ২৫ জন।

কারিগরি বোর্ডে পাসের হার ৮৫.০২ শতাংশ।

ছেলেদের মধ্যে পাসের হার ৭৭.৮৬ শতাংশ। জিপিএ-৫ প্রাপ্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৭৮৭ জন।

মেয়েদের মধ্যে পাসের হার ৭৮.৮৬ শতাংশ। জিপিএ-৫ প্রাপ্তের সংখ্যা ৩১ হাজার ৮১৫ জন।

বুধবার সকাল ১০টায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যানদের নিয়ে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলাফলের অনুলিপি হস্তান্তর করেন।

বেলা একটায় শিক্ষামন্ত্রী সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন বলে জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুবোধ চন্দ্র ঢালী।

এবারও ভিডিও কনফারেন্সে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী।

বিগত কয়েক বছর ধরে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা শেষের ৬০ দিনের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা হচ্ছে। আগামী ১৫ আগস্ট পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৬০ দিন পূর্ণ হওয়ার আগেই এবার ফল প্রকাশ হবে।

গত ৩ এপ্রিল সারা দেশে একযোগে এইচএসসি, আলিম ও এইচএসসি (বিএম/ভোকেশনাল) ও ডিআইবিএস পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হয় গত ৮ জুন।

দশটি বোর্ডের অধীনে ১১ লাখ ৪১ হাজার ৩৭৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেন।

সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহ ওয়েব মেইল এর মাধ্যমে প্রাপ্ত ফল ডাইনলোড করে প্রকাশ করার জন্য www.educationboard.gov.bd ওয়েবসাইটের ওয়েব মেইল ব্যবহার করে প্রতিষ্ঠানের EIIN এর মাধ্যমে ফল ডাউনলোড করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফল স্ব স্ব কেন্দ্র/শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে সংগ্রহ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

ইন্টারনেটে ফল
পরীক্ষার্থীগণ শিক্ষা বোর্ডসমূহের ওয়েবসাইট www.educationboardresults.gov.bd এবং সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফল সংগ্রহ করতে পারবেন।

মোবাইলে ফল
যে কোনো মোবাইল থেকে এসএমএসের মাধ্যমে ফল পেতে মেসেজ অপশনে গিয়ে HSC অথবা Alim লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সাল লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

উদাহরণ স্বরুপ: সাধারণ বোর্ডের জন্য HSC Dha 123456 2014, মাদ্রাসা বোর্ডের জন্য Alim Mad 123456 2014 এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের জন্য HSC Tec 123456 লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

পুনঃনিরীক্ষণ
পুনঃনিরীক্ষণের জন্য এসএমএসের মাধ্যমে ১৪ আগস্ট থেকে ২০ আগস্টর পর্যন্ত আবেদন গ্রহণ করা হবে।

এজন্য শুধু টেলিটক মোবাইল থেকে মেসেজ অপশনে গিয়ে RSC লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে স্পেস দিয়ে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

প্রতিটি বিষয় বা পত্রের জন্য ১৫০ টাকা ফি প্রযোজ্য।

ফিরতি এসএমএসে আবেদন ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেওয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর দেওয়া হবে। আবেদনে সম্মত থাকলে মেসেজ অপশনে গিয়ে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে মোবাইল নম্বর দিয়ে পূণরায় ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

যেসব বিষয়ের দুটি পত্র (যেমন: বাংলা ও ইংরেজি) রয়েছে, সেসব বিষয়ে একটি বিষয় কোডের বিপরীতে আবেদন দুটি পত্রের আবেদন হিসেবে বিবেচিত হবে এবং আবেদন ফি ৩০০ টাকা ফি নেওয়া হবে।

একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের আবেদন করা যাবে, এক্ষেত্রে বিষয় কোড পর্যায়ক্রমে কমা দিয়ে লিখতে হবে।






মন্তব্য চালু নেই